মৃত মেয়ের সঙ্গে মায়ের সাক্ষাৎ, কাঁদল পুরো বিশ্ব (ভিডিও)

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

মৃত্যু অবধারিত বিষয়, তাকে কিছু দিয়েই ঠেকিয়ে রাখা যায় না। কখনো মা বা বাবাকে হারান সন্তান আবার কখনো সন্তানকে হারান মা-বাবা। ২০১৬ সালে লিউকেমিয়ায় মারা যায় ছোট্ট শিশু না-ইয়ন। মৃত মেয়ের সঙ্গে চার বছর পর দেখা হলো মায়ের। তারা একসঙ্গে পার্কে ঘুরলেন, জন্মদিন পালন করলেন, আবেগ আদান-প্রদান করলেন। তবে পুরোপুরি বাস্তব নয়, প্রযুক্তির মাধ্যমে সম্ভব হয়েছে এটা।

 

দক্ষিণ কোরিয়ার তথ্য প্রযুক্তিবিদরা ভার্চুয়াল রিয়েলিটির (ভিআর) মাধ্যমে চার বছর আগে মারা যাওয়া মেয়ের সঙ্গে তার মায়ের সাক্ষাৎ করিয়ে দিলেন। মৃত মেয়ের সঙ্গে মায়ের কথোপকথন আর আবেগ আদান-প্রদানের একটি হৃদয়বিদারক ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। ভার্চুয়াল জগতে মা মেয়ের এই দেখা করার বিষয়টি নিয়ে বিশ্বজুড়ে হইচই শুরু হয়েছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল জাজিরায় প্রকাশিত খবরে বলা হয়, ২০১৬ সালে লিউকেমিয়ায় মারা যাওয়া শিশু না-ইয়নকে ভার্চুয়াল বাস্তবতায় মায়ের সামনে আনা হয়। মা ঝাং জি সাং মেয়ের সঙ্গে কথা বলেন। মেয়েকে ছুঁয়ে আদর করেন। মৃত মেয়েকে কাছে পেয়ে অঝোরে কাঁদেন তিনি।

 

তবে ঝাং জির মেয়ে বাস্তবে আসেনি। ঝাং-এর হাতে পরিয়ে দেওয়া হয় স্পর্শকাতর গ্লাভস আর চোখে পরানো হয় ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) বক্স। তিনি অপার্থিব জগতে মেয়েকে দেখতে পান, কথা বলেন এবং হাতের গ্লাভসে থাকা সেন্সরের মাধ্যমে মেয়েকে ছুঁয়ে আদর করেন। কীভাবে সম্ভব হলো এমন কিছু? প্রযুক্তিবিদরা প্রথমে না-ইয়ানের ছবি নিয়ে তার মতো এনিমেশন তৈরি করেন। এরপর এই এনিমেশনকে ভিআর বক্স ও সেন্সর হ্যান্ড গ্লাভসে সংযুক্ত করা হয়। দক্ষিণ কোরিয়ার একটি টেলিভিশন এই ভার্চুয়াল রিয়েলিটির ভিডিও প্রচার করে।

 

ভিডিওটি দেখা যায়, একটি গ্রিন স্কিন কক্ষে মা ঝাং জি চোখে ভিআর বক্স আর হাতে গ্লাভস পরে তার মেয়েকে ডাকছেন। এ সময় তিনি দেখতে পান, মায়ের ডাক শুনে তার মৃত মেয়ে একটি পার্কে থাকা কয়েকটি পাথরের আড়াল থেকে দৌড়ে তার কাছে ছুটে আসে। মেয়েটি এসে মাকে বলে, ‘মা, তুমি কোথায় ছিলে? তোমাকে আমার খুব মনে পড়ে। আমাকে কি তোমার মনে পড়ে?’ উত্তর দেওয়ার আগেই বাস্তবে কেঁদে ফেলেন মা। কাঁদতে কাঁদতেই জবাব দেন, তোমাকে আমার খুব মনে পড়ে। এ সময় মা তার মেয়েকে ছুঁয়ে আদর করেন।

 

মা আর তার মৃত মেয়ের এমন ভার্চুয়াল মিলনের দৃশ্য বাস্তবে এক হৃদয়বিদারক পরিস্থিতির জন্ম দেয়। উপস্থিত অন্যান্য প্রযুক্তিবিদরাও কাঁদতে থাকেন। ভিডিওটি দেখেও অসংখ্য মানুষ কেঁদে ফেলেছেন। এ দিকে, এমন ঘটনাকে মানুষের আবেগ আর বিশ্বাস নিয়ে প্রতারণা ভাবছেন সমালোচকরা। সামাজিক মাধ্যমে ভিডিওটি প্রকাশের পর দক্ষিণ কোরিয়ার বহু মানুষ এমন রিয়েলিটির বিরোধিতা করছেন।

ফেসবুক মন্তব্য করুন

সর্বশেষ সংবাদ



» ফতুল্লা মডেল থানায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালন

» কুয়াকাটারয় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবিতে রাখাইনদের মানববন্ধন

» রাজধানীতে বিএনপির মশাল মিছিল

» করোনা মোকাবিলায় সফল ৩ নারী নেতার তালিকায় শেখ হাসিনা

» বিক্ষোভের শততম দিনে সড়ক অবরোধ ভারতীয় কৃষকদের

» ৬ ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ৩৮ জন আওয়ামীলীগের মনোনয়ন ফরম ক্রয় 

» ধর্ষণ মামলার সাক্ষীকে মারধোরের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

» আড়পাঙ্গাশিয়া সা‌বেক চেয়ারম‌্যান হা‌কিম হাওলাদা‌রের ই‌ন্তেকাল

» বক্তাবলীতে জিয়ার বীর উত্তম খেতাব বাতিলে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

» আমতলী উপজেলা পরিষদের মাসিক সমন্বয় সভা পন্ড’ দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি সংর্ঘষে আহত ১৫




প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
নির্বাহী সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
editor.kuakatanews@gmail.com

যোগাযোগ: সৌদি ভিলা- চ ৩৫/৫ উত্তর বাড্ডা,
গুলশান, ঢাকা- ১২১২।
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯ ।

News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : সোমবার, ৮ মার্চ ২০২১, খ্রিষ্টাব্দ, ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মৃত মেয়ের সঙ্গে মায়ের সাক্ষাৎ, কাঁদল পুরো বিশ্ব (ভিডিও)

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

মৃত্যু অবধারিত বিষয়, তাকে কিছু দিয়েই ঠেকিয়ে রাখা যায় না। কখনো মা বা বাবাকে হারান সন্তান আবার কখনো সন্তানকে হারান মা-বাবা। ২০১৬ সালে লিউকেমিয়ায় মারা যায় ছোট্ট শিশু না-ইয়ন। মৃত মেয়ের সঙ্গে চার বছর পর দেখা হলো মায়ের। তারা একসঙ্গে পার্কে ঘুরলেন, জন্মদিন পালন করলেন, আবেগ আদান-প্রদান করলেন। তবে পুরোপুরি বাস্তব নয়, প্রযুক্তির মাধ্যমে সম্ভব হয়েছে এটা।

 

দক্ষিণ কোরিয়ার তথ্য প্রযুক্তিবিদরা ভার্চুয়াল রিয়েলিটির (ভিআর) মাধ্যমে চার বছর আগে মারা যাওয়া মেয়ের সঙ্গে তার মায়ের সাক্ষাৎ করিয়ে দিলেন। মৃত মেয়ের সঙ্গে মায়ের কথোপকথন আর আবেগ আদান-প্রদানের একটি হৃদয়বিদারক ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। ভার্চুয়াল জগতে মা মেয়ের এই দেখা করার বিষয়টি নিয়ে বিশ্বজুড়ে হইচই শুরু হয়েছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল জাজিরায় প্রকাশিত খবরে বলা হয়, ২০১৬ সালে লিউকেমিয়ায় মারা যাওয়া শিশু না-ইয়নকে ভার্চুয়াল বাস্তবতায় মায়ের সামনে আনা হয়। মা ঝাং জি সাং মেয়ের সঙ্গে কথা বলেন। মেয়েকে ছুঁয়ে আদর করেন। মৃত মেয়েকে কাছে পেয়ে অঝোরে কাঁদেন তিনি।

 

তবে ঝাং জির মেয়ে বাস্তবে আসেনি। ঝাং-এর হাতে পরিয়ে দেওয়া হয় স্পর্শকাতর গ্লাভস আর চোখে পরানো হয় ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) বক্স। তিনি অপার্থিব জগতে মেয়েকে দেখতে পান, কথা বলেন এবং হাতের গ্লাভসে থাকা সেন্সরের মাধ্যমে মেয়েকে ছুঁয়ে আদর করেন। কীভাবে সম্ভব হলো এমন কিছু? প্রযুক্তিবিদরা প্রথমে না-ইয়ানের ছবি নিয়ে তার মতো এনিমেশন তৈরি করেন। এরপর এই এনিমেশনকে ভিআর বক্স ও সেন্সর হ্যান্ড গ্লাভসে সংযুক্ত করা হয়। দক্ষিণ কোরিয়ার একটি টেলিভিশন এই ভার্চুয়াল রিয়েলিটির ভিডিও প্রচার করে।

 

ভিডিওটি দেখা যায়, একটি গ্রিন স্কিন কক্ষে মা ঝাং জি চোখে ভিআর বক্স আর হাতে গ্লাভস পরে তার মেয়েকে ডাকছেন। এ সময় তিনি দেখতে পান, মায়ের ডাক শুনে তার মৃত মেয়ে একটি পার্কে থাকা কয়েকটি পাথরের আড়াল থেকে দৌড়ে তার কাছে ছুটে আসে। মেয়েটি এসে মাকে বলে, ‘মা, তুমি কোথায় ছিলে? তোমাকে আমার খুব মনে পড়ে। আমাকে কি তোমার মনে পড়ে?’ উত্তর দেওয়ার আগেই বাস্তবে কেঁদে ফেলেন মা। কাঁদতে কাঁদতেই জবাব দেন, তোমাকে আমার খুব মনে পড়ে। এ সময় মা তার মেয়েকে ছুঁয়ে আদর করেন।

 

মা আর তার মৃত মেয়ের এমন ভার্চুয়াল মিলনের দৃশ্য বাস্তবে এক হৃদয়বিদারক পরিস্থিতির জন্ম দেয়। উপস্থিত অন্যান্য প্রযুক্তিবিদরাও কাঁদতে থাকেন। ভিডিওটি দেখেও অসংখ্য মানুষ কেঁদে ফেলেছেন। এ দিকে, এমন ঘটনাকে মানুষের আবেগ আর বিশ্বাস নিয়ে প্রতারণা ভাবছেন সমালোচকরা। সামাজিক মাধ্যমে ভিডিওটি প্রকাশের পর দক্ষিণ কোরিয়ার বহু মানুষ এমন রিয়েলিটির বিরোধিতা করছেন।

ফেসবুক মন্তব্য করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
নির্বাহী সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
editor.kuakatanews@gmail.com

যোগাযোগ: সৌদি ভিলা- চ ৩৫/৫ উত্তর বাড্ডা,
গুলশান, ঢাকা- ১২১২।
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯ ।

News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD