জাকির খানের নেতৃত্বে উজ্জীবিত নারায়ণগঞ্জ বিএনপি

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

নারায়ণগঞ্জের বিএনপির রাজনীতিতে আপোষহীন নেতা জাকির খান এমনি দাবী করেন তৃনমূল বিএনপির নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের । হামলা -মামলা, রাজনৈতিক নিপীড়নের কারনে দীর্ঘ দিন প্রবাসে থাকার পরেও সরকার বিরোধী প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রাম, দলীয় কর্মকান্ড সহ সামাজিক প্রতিটি কাজে এখনো সক্রিয় ভূমিকায় রয়েছে নাঃগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও বর্তমানে জেলা বিএনপি নেতা জাকির খান ও তার অনুসারীরা।

 

বছরখানেক পূর্বে জাকির খান থাইল্যান্ড থেকে ভারতে এসে তার দলের কয়েকশত নেতা-কর্মীদের নিয়ে আজমীর শরীফ ও বম্বের শাহ্ আলীর মাজার শরীফ জিয়ারত করে দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের জন্য দোয়া ও মিলাদের আয়োজন করার সংবাদ জাকির খানের ছবিসহ অন লাইন পোর্টাল টুডে টাইমসে প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে নাঃগঞ্জের বিএনপির তৃনমূল নেতা-কর্মী ও সমর্থকেরা আরো বেশী উজ্জীবিত হয়ে উঠে বলে জানা গেছে। তৃনমূল নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের অভিমত জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, নাসিকের কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু, মহানগর বিএনপি নেতা আতাউর রহমান মুকুল, জেলা বিএনপি নেতা এডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, মনিরুল আলম সেন্টু সহ অনেক বিএনপির নেতা যখন সরকার দলের এমপি, শীর্ষ নেতা দের সাথে গভীর সখ্যতা রেখে রাজনীতি করে যাচ্ছে সেখানে জাকির খান ই একমাত্র নেতা যিনি শহীদ জিয়ার আদর্শ ধারন করে বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের মতো আজো আপোষহীন ভূমিকায় রয়েছে ।

 

সুত্রের অভিযোগ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার বর্তমান আওয়ামী সরকারের সাথে গভীর সম্পর্ক রেখে বাংলাদেশ জাতীয় বধির সংস্থার চেয়ারম্যান পদে বহাল রয়েছে পাশাপাশি এই বর্ষীয়ান বিএনপি নেতার সাথে রয়েছে নাঃগঞ্জের সরকার দলীয় এক প্রভাবশালী এমপির সু সম্পর্ক। সুত্রের দাবী ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগের ওই প্রভাবশালী এমপি বিভিন্ন টকশো, দলীয় অনুষ্ঠানে প্রকাশ্যেই বলে থাকেন যে নাঃগঞ্জের বিএনপির শীর্ষ কয়েক জন নেতা রয়েছে যারা দিনের বেলায় সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলে মাইক ফাটিঁয়ে ফেলে অথচ রাতের বেলায় আবার ফোন করে ক্ষমা চাইতেও দ্বিধাবোধ করে না ।

 

বিএনপির ত্যাগী,পরীক্ষিত তৃন মূলের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের অভিযোগ এই ধরনের মীর জাফর প্রকৃতির নেতাদের কারনে নাঃগঞ্জ জেলা বিএনপি আজ নড়বড়ে অবস্হানে রয়েছে। সুত্রের অভিযোগ নাঃগঞ্জের বিএনপির অনেক শীর্ষ নেতা রয়েছে যারা সরকার বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রামের নামে রাজপথে নেমে শুধু ফটোসেশন করে ই নিরাপদ পরিসরে চলে যায় অথচ ত্যাগী,পরীক্ষিত নেতা কর্মীরা রাজপথে সক্রিয় থেকে পুলিশী নির্যাতন, মামলা -হামলার শিকার হচ্ছে ।

 

সুত্রের দাবী জাকির খানের নির্দেশে তার অনুসারী হাজার হাজার নেতা কর্মীরা নাঃ গঞ্জের রাজপথে দলীয় প্রধান বেগম জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমান সহ জাকির খান এবং বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে বিভিন্ন সময়ে বিক্ষোভ মিছিল করে যাচ্ছে, পুলিশী নির্যাতন, হামলা -মামলা উপেক্ষা করে জাকির খানের অনুসারীরা যেভাবে রাজপথে সক্রিয় রয়েছে এর তিল পরিমান সক্রিয়তা দেখা যায় নি এডভোকেট তৈমুর আলম সহ বিএনপির শীর্ষ অনেক নেতা ও তাদের কর্মীদের মধ্যে যে কারনে এসকল নেতাদের প্রতি ব্যাপক ক্ষোভ রয়েছে দলের ত্যাগী, পরীক্ষিত তৃণমূলের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের। সুত্রের অভিমত, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি থাকাকালীন জাকির খান ও তার রাজনৈতিক সহযোদ্ধারা দলীয়, সামাজিক কর্মকান্ডে যে ভাবে নিবেদিত ছিলো প্রবাস জীবনে থাকা জাকির খানের নির্দেশে তার রাজনৈতিক সহযোদ্ধা, অনুসারীরা এখনো তেমনি সক্রিয় রয়েছে ।

 

অতি সম্প্রতি ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থীদের নির্বাচনী গণসংযোগে জাকির খানের নির্দেশে তার অনুসারীরা নিয়মিত অংশগ্রহন করেছে পাশাপাশি নাঃগঞ্জের বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানে সরব উপস্থিতি রয়েছে খান অনুসারীদের ।

 

সুত্রের দাবী নাঃগঞ্জের বিএনপির শীর্ষ অনেক নেতা ই রয়েছে তারা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে স্হানীয় আওয়ামী লীগের নেতা ও সরকারের দালালী করে আবার মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বিএনপির বড় বড় পদ বাগিয়ে নিয়ে আসেন দলের কিছু অসাধু নেতাদের মাধ্যমে অথচ জাকির খান ই একমাত্র নেতা যিনি দলীয় প্রধান বেগম জিয়া, তারেক রহমান ও দলের স্বার্থে আপোষহীন ভূমিকা রয়েছে যাচ্ছেন আজো। বিএনপির তৃনমূলের ত্যাগী,পরীক্ষিত নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের অভিমত জেলা বিএনপিতে জাকির খান কে শীর্ষ পদে অধিষ্ঠিত করা হলে এ জেলার বিএনপি আরো শক্তিশালী হবে, বেগম জিয়ার মুক্তির আন্দোলন সহ সরকার বিরোধী আন্দোলন -সংগ্রাম নাঃগঞ্জ বিএনপি আরো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে রাজনীতিতে ।

 

তৃনমূল বিএনপির নেতা-কর্মীরা জানায়, বিগত ২০১৭ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারী শিল্পপতি কাজী মনিরুজ্জামান কে সভাপতি ও অধ্যাপক মামুন মাহমুদ কে সাধারন সম্পাদক ঘোষনা করে নাঃগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি দেওয়া হলেও ৩ বছরে এ কমিটি ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে, আন্দোলন সংগ্রামে তারা কোনো ভূমিকাই রাখতে পারে নি অথচ কমিটি বাণিজ্যের নামে হাতিয়ে নিয়েছে লাখ লাখ টাকা আর এ কারনেই দলের ত্যাগী, পরীক্ষিত নেতা জাকির খান সহ অনেক নেতা কর্মীরা পদ বঞ্চিত হয়েছেন। অথচ জাকির খান সহ পদ বঞ্চিত নেতা-কর্মীরা ই আজো নাঃগঞ্জের বিএনপি কে রাজনৈতিক ভাবে চাঙ্গা করে রেখেছে বলে দাবী তৃনমূলের।

 

সুত্রের অভিযোগে আরো জানা গেছে বিগত বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে বিআরটিসি’র চেয়ারম্যান পদ থাকা জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার , আতাউর রহমান মুকুল, শওকত হাশেম শকু, আজাদ বিশ্বাস, মনিরুল আলম সেন্টু দের মতো দু’মুখো ব্যক্তিদের নাঃগঞ্জ বিএনপির নেতৃত্বে দেওয়া হলে এ জেলার বিএনপি ডাইনোসরের মতো বিলুপ্ত হয়ে যাবে আর ত্যাগী, পরীক্ষিত নেতা-কর্মীরা নীরবে নিভৃতে হারিয়ে যাবে রাজনৈতিক অঙ্গন থেকে।

Facebook Comments

সর্বশেষ সংবাদ



» রাজপথে আন্দোলন করে মামলা খেতে রাজি আছি: মোস্তাফিজুর রহমান

» সোনারগাঁও পৌরসভা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড কমিটি গঠন

» শেখ হাসিনা’র জন্মদিন উপলক্ষে পথশিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ করলেন খান মাসুদ

» এনজিও কর্মী হত্যার প্রধান আসামি হান্নান গ্রেফতার

» ফতুল্লা থানা শেখ রাসেল শিশু-কিশোর পরিষদের নবগঠিত কমিটিকে ফুলেল শুভেচ্ছা

» ফতুল্লা প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালিত

» সিদ্ধিরগঞ্জে প্রেমিকার বিয়ের দিনে প্রেমিকের আত্মহত্যা

» দেবরকে আটক করায় আ.লীগ থেকে পদত্যাগ করলেন ভাইস চেয়ারম‌্যান

» কলাপাড়ায় তিন ব্যবসায়ী ও দুই বাস চালককে অর্থদন্ড

» শেখ হাসিনা আছেন বলেই গরিবের মুখে হাসি ফুটেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী




প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির
editor.kuakatanews@gmail.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯ ,

বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, খ্রিষ্টাব্দ, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

জাকির খানের নেতৃত্বে উজ্জীবিত নারায়ণগঞ্জ বিএনপি

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

নারায়ণগঞ্জের বিএনপির রাজনীতিতে আপোষহীন নেতা জাকির খান এমনি দাবী করেন তৃনমূল বিএনপির নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের । হামলা -মামলা, রাজনৈতিক নিপীড়নের কারনে দীর্ঘ দিন প্রবাসে থাকার পরেও সরকার বিরোধী প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রাম, দলীয় কর্মকান্ড সহ সামাজিক প্রতিটি কাজে এখনো সক্রিয় ভূমিকায় রয়েছে নাঃগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও বর্তমানে জেলা বিএনপি নেতা জাকির খান ও তার অনুসারীরা।

 

বছরখানেক পূর্বে জাকির খান থাইল্যান্ড থেকে ভারতে এসে তার দলের কয়েকশত নেতা-কর্মীদের নিয়ে আজমীর শরীফ ও বম্বের শাহ্ আলীর মাজার শরীফ জিয়ারত করে দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের জন্য দোয়া ও মিলাদের আয়োজন করার সংবাদ জাকির খানের ছবিসহ অন লাইন পোর্টাল টুডে টাইমসে প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে নাঃগঞ্জের বিএনপির তৃনমূল নেতা-কর্মী ও সমর্থকেরা আরো বেশী উজ্জীবিত হয়ে উঠে বলে জানা গেছে। তৃনমূল নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের অভিমত জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, নাসিকের কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু, মহানগর বিএনপি নেতা আতাউর রহমান মুকুল, জেলা বিএনপি নেতা এডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, মনিরুল আলম সেন্টু সহ অনেক বিএনপির নেতা যখন সরকার দলের এমপি, শীর্ষ নেতা দের সাথে গভীর সখ্যতা রেখে রাজনীতি করে যাচ্ছে সেখানে জাকির খান ই একমাত্র নেতা যিনি শহীদ জিয়ার আদর্শ ধারন করে বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের মতো আজো আপোষহীন ভূমিকায় রয়েছে ।

 

সুত্রের অভিযোগ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার বর্তমান আওয়ামী সরকারের সাথে গভীর সম্পর্ক রেখে বাংলাদেশ জাতীয় বধির সংস্থার চেয়ারম্যান পদে বহাল রয়েছে পাশাপাশি এই বর্ষীয়ান বিএনপি নেতার সাথে রয়েছে নাঃগঞ্জের সরকার দলীয় এক প্রভাবশালী এমপির সু সম্পর্ক। সুত্রের দাবী ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগের ওই প্রভাবশালী এমপি বিভিন্ন টকশো, দলীয় অনুষ্ঠানে প্রকাশ্যেই বলে থাকেন যে নাঃগঞ্জের বিএনপির শীর্ষ কয়েক জন নেতা রয়েছে যারা দিনের বেলায় সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলে মাইক ফাটিঁয়ে ফেলে অথচ রাতের বেলায় আবার ফোন করে ক্ষমা চাইতেও দ্বিধাবোধ করে না ।

 

বিএনপির ত্যাগী,পরীক্ষিত তৃন মূলের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের অভিযোগ এই ধরনের মীর জাফর প্রকৃতির নেতাদের কারনে নাঃগঞ্জ জেলা বিএনপি আজ নড়বড়ে অবস্হানে রয়েছে। সুত্রের অভিযোগ নাঃগঞ্জের বিএনপির অনেক শীর্ষ নেতা রয়েছে যারা সরকার বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রামের নামে রাজপথে নেমে শুধু ফটোসেশন করে ই নিরাপদ পরিসরে চলে যায় অথচ ত্যাগী,পরীক্ষিত নেতা কর্মীরা রাজপথে সক্রিয় থেকে পুলিশী নির্যাতন, মামলা -হামলার শিকার হচ্ছে ।

 

সুত্রের দাবী জাকির খানের নির্দেশে তার অনুসারী হাজার হাজার নেতা কর্মীরা নাঃ গঞ্জের রাজপথে দলীয় প্রধান বেগম জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমান সহ জাকির খান এবং বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে বিভিন্ন সময়ে বিক্ষোভ মিছিল করে যাচ্ছে, পুলিশী নির্যাতন, হামলা -মামলা উপেক্ষা করে জাকির খানের অনুসারীরা যেভাবে রাজপথে সক্রিয় রয়েছে এর তিল পরিমান সক্রিয়তা দেখা যায় নি এডভোকেট তৈমুর আলম সহ বিএনপির শীর্ষ অনেক নেতা ও তাদের কর্মীদের মধ্যে যে কারনে এসকল নেতাদের প্রতি ব্যাপক ক্ষোভ রয়েছে দলের ত্যাগী, পরীক্ষিত তৃণমূলের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের। সুত্রের অভিমত, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি থাকাকালীন জাকির খান ও তার রাজনৈতিক সহযোদ্ধারা দলীয়, সামাজিক কর্মকান্ডে যে ভাবে নিবেদিত ছিলো প্রবাস জীবনে থাকা জাকির খানের নির্দেশে তার রাজনৈতিক সহযোদ্ধা, অনুসারীরা এখনো তেমনি সক্রিয় রয়েছে ।

 

অতি সম্প্রতি ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থীদের নির্বাচনী গণসংযোগে জাকির খানের নির্দেশে তার অনুসারীরা নিয়মিত অংশগ্রহন করেছে পাশাপাশি নাঃগঞ্জের বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানে সরব উপস্থিতি রয়েছে খান অনুসারীদের ।

 

সুত্রের দাবী নাঃগঞ্জের বিএনপির শীর্ষ অনেক নেতা ই রয়েছে তারা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে স্হানীয় আওয়ামী লীগের নেতা ও সরকারের দালালী করে আবার মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বিএনপির বড় বড় পদ বাগিয়ে নিয়ে আসেন দলের কিছু অসাধু নেতাদের মাধ্যমে অথচ জাকির খান ই একমাত্র নেতা যিনি দলীয় প্রধান বেগম জিয়া, তারেক রহমান ও দলের স্বার্থে আপোষহীন ভূমিকা রয়েছে যাচ্ছেন আজো। বিএনপির তৃনমূলের ত্যাগী,পরীক্ষিত নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের অভিমত জেলা বিএনপিতে জাকির খান কে শীর্ষ পদে অধিষ্ঠিত করা হলে এ জেলার বিএনপি আরো শক্তিশালী হবে, বেগম জিয়ার মুক্তির আন্দোলন সহ সরকার বিরোধী আন্দোলন -সংগ্রাম নাঃগঞ্জ বিএনপি আরো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে রাজনীতিতে ।

 

তৃনমূল বিএনপির নেতা-কর্মীরা জানায়, বিগত ২০১৭ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারী শিল্পপতি কাজী মনিরুজ্জামান কে সভাপতি ও অধ্যাপক মামুন মাহমুদ কে সাধারন সম্পাদক ঘোষনা করে নাঃগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি দেওয়া হলেও ৩ বছরে এ কমিটি ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে, আন্দোলন সংগ্রামে তারা কোনো ভূমিকাই রাখতে পারে নি অথচ কমিটি বাণিজ্যের নামে হাতিয়ে নিয়েছে লাখ লাখ টাকা আর এ কারনেই দলের ত্যাগী, পরীক্ষিত নেতা জাকির খান সহ অনেক নেতা কর্মীরা পদ বঞ্চিত হয়েছেন। অথচ জাকির খান সহ পদ বঞ্চিত নেতা-কর্মীরা ই আজো নাঃগঞ্জের বিএনপি কে রাজনৈতিক ভাবে চাঙ্গা করে রেখেছে বলে দাবী তৃনমূলের।

 

সুত্রের অভিযোগে আরো জানা গেছে বিগত বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে বিআরটিসি’র চেয়ারম্যান পদ থাকা জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার , আতাউর রহমান মুকুল, শওকত হাশেম শকু, আজাদ বিশ্বাস, মনিরুল আলম সেন্টু দের মতো দু’মুখো ব্যক্তিদের নাঃগঞ্জ বিএনপির নেতৃত্বে দেওয়া হলে এ জেলার বিএনপি ডাইনোসরের মতো বিলুপ্ত হয়ে যাবে আর ত্যাগী, পরীক্ষিত নেতা-কর্মীরা নীরবে নিভৃতে হারিয়ে যাবে রাজনৈতিক অঙ্গন থেকে।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির
editor.kuakatanews@gmail.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯ ,

বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD