কানাডার ফেডারেল নির্বাচনে বাংলাদেশি আফরোজা

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

কানাডার ফেডারেল নির্বাচনে দেশটির ডারহাম অঞ্চলের অশোয়া এলাকা থেকে লিবারেল পার্টির মনোনয়ন নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কানাডীয় আফরোজা হোসেন। ২১ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে ফেডারেল নির্বাচন। এরই মধ্যে শুরু হয়েছে ভোট গ্রহণ। লিবারেল পার্টি থেকে আফরোজা হোসেনের নির্বাচনী প্রচারপত্রে লেখা হয়েছে, ‘মিট আফরোজা-এ চ্যাম্পিয়ন ফর মিডল ক্লাস ফ্যামিলি ইন অশোয়া’। ১৫ বছরের বেশি সময় ধরে পরিবার নিয়ে এই এলাকায় বসবাস করছেন তিনি। মধ্যবিত্ত জীবনের নানা টানাপোড়েন মাড়িয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন আফরোজা। ধীরে ধীরে নিজেকে তৈরি করেছেন।

 

ডারহাম কলেজ থেকে বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে ডিপ্লোমা করেছেন এবং পরবর্তী সময়ে অন্টারিও ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কমার্সে অনার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন। দেশটির আর্থসামাজিক অবস্থা সম্পর্কে জানতে আফরোজা হোসেন নিজেকে জড়িয়েছেন নানা দাতব্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে। তিনি প্রায় ১৩টি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করছেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হিউম্যান রাইটস, কানাডিয়ান স্পেস সোসাইটি ও রিফিউজি পুনর্বাসন। খাদ্য, বাসস্থান, স্বাস্থ্য ও শিক্ষার মতো মৌলিক অধিকারগুলোর ব্যাপারে তিনি বরাবরই সোচ্চার।

 

তিনি বলেন, লিবারেল পার্টি থেকে আমাকে এমপি পদে প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করায় আমার দলকে ধন্যবাদ জানাই। আর এ পর্যায়ে আসা সম্ভব হয়েছে আমার এলাকার বাসিন্দাদের জন্য। যাদের সঙ্গে নানাবিধ কাজে শরিক হয়ে আমি নিজেকে তৈরি করার সুযোগ পেয়েছি। আমার বিশ্বাস আমার নির্বাচনী এলাকার সম্মানিত ভোটাররা আমার দল ও ব্যক্তিগত কাজের মূল্যায়ন করবেন। আফরোজা হোসেন আরও বলেন, বাংলাদেশি কানাডীয় হিসেবে আমি গর্বিত। আমি মনে করি এ দেশের রাজনীতিতে আমাদের আরও সক্রিয় ও সম্পৃক্ত হওয়া প্রয়োজন। আমি আমার প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। সকল বাংলাদেশিদের কাছে অনুরোধ করব দেশ ছেড়ে আসা আপনার এক স্বজনের জন্য প্রার্থনা করবেন। আমার শেকড় ও জন্মভূমি বাংলাদেশ।

 

ঢাকার বিক্রমপুরে জন্ম নেওয়া আফরোজা ৩০ বছর আগে স্বামী মোয়াজ্জেম হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে কানাডায় অভিবাসী হিসেবে পাড়ি জমান। তার শৈশব ও কৈশোর কেটেছে শহর ঢাকায়। পড়াশোনা করেছেন মোহাম্মদপুর গার্লস হাইস্কুল ও লালমাটিয়া গার্লস কলেজে। দেশটিতে বসবাসরত বাঙালিরাও ফেডারেল নির্বাচনে আফরোজা হোসেনের প্রার্থিতায় আনন্দিত। প্রাদেশিক নির্বাচনে জয়ী প্রথম বাংলাদেশি এমপিপি ডলি বেগমের পর আবারও কি আরেকটা উৎসবের উপলক্ষ এনে দিতে পারবেন আফরোজা।

 

 

Facebook Comments

সর্বশেষ সংবাদ



» কান্না জড়িত কন্ঠে শাহানাজ” আমার গর্ভের সন্তান নষ্ট করেও ক্ষ্যান্ত হয়নি ওরা!

» সিদ্ধিরগঞ্জে প্রথম বিট পুলিশিং কার্যালয়ের উদ্বোধন

» ‘চাইলেই মানবসেবা করা যায় না ইচ্ছেটা অন্তর থেকে আসে’-আহসান আল হোসাইন(ববি)

» বক্তাবলী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আফাজুল ইসলামের ইন্তেকাল’ শওকত চেয়ারম্যানের শোক প্রকাশ

» ২নং ওর্য়াডের অসহায় বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীদের মাসিক ভাতার বই বিতরন 

» বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনে দস্যুদমন ও বনের বনজ সম্পদ রক্ষায় পুলিশের বিশেষ অভিযান শুরু

» অসুস্থ দিনমজুর সোবাহান চিকিৎসার সহায়তা চান

» হিজড়াদের তান্ডবে করোনার দুর্যোগের মধ্যে অতিষ্ঠ গ্রামাঞ্চলের মানুষ

» যুবলীগ কর্মীর লিঙ্গ ও পায়ের রগ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা

» শার্শায় ইঞ্জিন চালিত ভ্যানের ধাক্কায় শিশুর মৃত্যু




প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির
editor.kuakatanews@gmail.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯ ,

বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : রবিবার, ৫ জুলাই ২০২০, খ্রিষ্টাব্দ, ২১শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কানাডার ফেডারেল নির্বাচনে বাংলাদেশি আফরোজা

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

কানাডার ফেডারেল নির্বাচনে দেশটির ডারহাম অঞ্চলের অশোয়া এলাকা থেকে লিবারেল পার্টির মনোনয়ন নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কানাডীয় আফরোজা হোসেন। ২১ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে ফেডারেল নির্বাচন। এরই মধ্যে শুরু হয়েছে ভোট গ্রহণ। লিবারেল পার্টি থেকে আফরোজা হোসেনের নির্বাচনী প্রচারপত্রে লেখা হয়েছে, ‘মিট আফরোজা-এ চ্যাম্পিয়ন ফর মিডল ক্লাস ফ্যামিলি ইন অশোয়া’। ১৫ বছরের বেশি সময় ধরে পরিবার নিয়ে এই এলাকায় বসবাস করছেন তিনি। মধ্যবিত্ত জীবনের নানা টানাপোড়েন মাড়িয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন আফরোজা। ধীরে ধীরে নিজেকে তৈরি করেছেন।

 

ডারহাম কলেজ থেকে বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে ডিপ্লোমা করেছেন এবং পরবর্তী সময়ে অন্টারিও ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কমার্সে অনার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন। দেশটির আর্থসামাজিক অবস্থা সম্পর্কে জানতে আফরোজা হোসেন নিজেকে জড়িয়েছেন নানা দাতব্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে। তিনি প্রায় ১৩টি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করছেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হিউম্যান রাইটস, কানাডিয়ান স্পেস সোসাইটি ও রিফিউজি পুনর্বাসন। খাদ্য, বাসস্থান, স্বাস্থ্য ও শিক্ষার মতো মৌলিক অধিকারগুলোর ব্যাপারে তিনি বরাবরই সোচ্চার।

 

তিনি বলেন, লিবারেল পার্টি থেকে আমাকে এমপি পদে প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করায় আমার দলকে ধন্যবাদ জানাই। আর এ পর্যায়ে আসা সম্ভব হয়েছে আমার এলাকার বাসিন্দাদের জন্য। যাদের সঙ্গে নানাবিধ কাজে শরিক হয়ে আমি নিজেকে তৈরি করার সুযোগ পেয়েছি। আমার বিশ্বাস আমার নির্বাচনী এলাকার সম্মানিত ভোটাররা আমার দল ও ব্যক্তিগত কাজের মূল্যায়ন করবেন। আফরোজা হোসেন আরও বলেন, বাংলাদেশি কানাডীয় হিসেবে আমি গর্বিত। আমি মনে করি এ দেশের রাজনীতিতে আমাদের আরও সক্রিয় ও সম্পৃক্ত হওয়া প্রয়োজন। আমি আমার প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। সকল বাংলাদেশিদের কাছে অনুরোধ করব দেশ ছেড়ে আসা আপনার এক স্বজনের জন্য প্রার্থনা করবেন। আমার শেকড় ও জন্মভূমি বাংলাদেশ।

 

ঢাকার বিক্রমপুরে জন্ম নেওয়া আফরোজা ৩০ বছর আগে স্বামী মোয়াজ্জেম হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে কানাডায় অভিবাসী হিসেবে পাড়ি জমান। তার শৈশব ও কৈশোর কেটেছে শহর ঢাকায়। পড়াশোনা করেছেন মোহাম্মদপুর গার্লস হাইস্কুল ও লালমাটিয়া গার্লস কলেজে। দেশটিতে বসবাসরত বাঙালিরাও ফেডারেল নির্বাচনে আফরোজা হোসেনের প্রার্থিতায় আনন্দিত। প্রাদেশিক নির্বাচনে জয়ী প্রথম বাংলাদেশি এমপিপি ডলি বেগমের পর আবারও কি আরেকটা উৎসবের উপলক্ষ এনে দিতে পারবেন আফরোজা।

 

 

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির
editor.kuakatanews@gmail.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯ ,

বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD