আড়াইহাজার থানার ওসির কান্ড : মামলা না নিয়ে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ!

আড়াইহাজারে স্ত্রীকে আনতে শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে পুলিশের সামনেই হামলা শিকার হয়েছেন বর ও  বরের সঙ্গে থাকা আরো ৫ জন। 

 

হামলায় আহতরা হলেন, নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থানাধীন দেউলপাড়া এলাকার বর আরমান মোল্লা ও তার বাবা রমিজউদ্দিন মোল্লা, নিকট আত্মীয় আউলাদ হোসেন, সাইফুল ইসলাম,রাশেদ খান রাজু ও হারুন মোল্লা। 

 

আহতের উদ্ধার করে পুলিশ থানায় নিয়ে আসার পর স্থানীয় এক যুবলীগ নেতার কথায়  আহতদের মামলা না নিয়ে ফের লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছে আড়াইহাজার থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত (ওসি) পুলিশ পরিদর্শক শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে। এমনকি বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে নিজের ইচ্ছেমত একটি জিডি লিখে বরের কাছ থেকে স্বাক্ষর নিয়ে নেন তিনি।  
 
 
বর আরমান মোল্লা জানান, চলতি বছরের ২১মে নারায়ণগঞ্জ আদালত মোকাম বিজ্ঞ নোটারি পাবলিক কার্যালয়ে আড়াইহাজার উপজেলার গহরদী এলাকার প্রবাসী কবির হোসেনের মেয়ে স্বপ্না আক্তার (১৯) এর সঙ্গে ২ লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য্য করে ২০ হাজার টাকা ওয়াশিল দিয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই। 

 

বিবাহের পর কনের পরিবারের লোকজন মেনে নেয়। গত ২জুন কনের মা জোসনা বেগম ঈদ উপলক্ষে স্বপ্নাকে তার বাবার বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে আমার সঙ্গে আমার স্ত্রীর সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। ৪ জুন একটি মোবাইল নাম্বার থেকে আমাকে নানা ভাষায় হুমকী দিয়ে থাকেন। 

 

এর পর আমি ফতুল্লা মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করি। যাহার নং- ৩১০। তারিখ ৮-৬-১৯ইং। উক্ত ডাইয়েরীর বিষয়টি ফতুল্লা থানার ওসি আড়াইহাজার থানার ওসিকে অবহিত করেন।

 
তিনি জানান, রোববার বিকালে আড়াইহাজার থানার এসআই আতাউরসহ কনের বাড়িতে যান। এ সময় পুলিশের সামনেই আমার সঙ্গে থাকা বাবাসহ অন্যন্যদের ওপর হামলা চালানো হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে এসআই আমাদের উদ্ধার করে নিয়ে আসেন।

 
এ ঘটনায় মামলা করতে থানায় গেলে আড়াইহাজার থানার সাময়িক দায়িত্বপ্রাপ্ত (ওসি) পুলিশ পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম কনে পক্ষের পরিচিত এক স্থানীয় যুবলীগ নেতার সামনে লাহ্নিত করেন এবং বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে নিজের ইচ্ছেমত একটি জিডি লিখে আমার (বর) কাছ থেকে স্বাক্ষর নিয়ে নেন।

 
আরমান মোল্লা আরো জানান, থানার কর্তব্যরত ডিউটি অফিসারের রুমে স্থাপনকৃত সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ দেখলে এর সত্যতা পাওয়া যাবে।

 

এ বিষয়ে আড়াইহাজার থানার সাময়িক দায়িত্বপ্রাপ্ত (ওসি) পুলিশ পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম জানান তার বিরুদ্ধে আনিত এসব অভিযোগ সঠিক নহে। তারা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

 

-যুগের চিন্তা ২৪

Facebook Comments

সর্বশেষ সংবাদ



» গলাচিপায় দুর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে দুটি দোকান পুড়ে ছাই, ২৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি

» ৩ দিন পর বান্দরবানে নিখোঁজ নারীর শ্রমিকের লাশ চকরিয়ার মানিকপুর থেকে উদ্ধার

» রাবির প্রাথমিক আবেদনের ফলাফল মঙ্গলবার দুপুর ১২টা থেকে শুরু

» রাঙ্গাবালীর গহিনখালি ব্রিজ এখন মরণফাঁদ দ্রুত সংস্কারের দাবি এলাকাবাসীর

» পর্যটন পিপাসুদের জন্য নিরাপত্তা ও সুযোগ সুবিধা প্রয়োজন

» সিদ্ধিরগঞ্জে ১৪ মামলার আসামী শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী মুন্না গ্রেফতার

» ডিএনডি খাল পুনঃখনন ও রাস্তার পাড় সৌন্দর্য বর্ধন কাজের পরিদর্শনে মেয়র আইভী

» গোল্ডকাপ ফুটবল প্রতিযোগীতা ২০১৯ বিজয়ী বেনাপোল পৌরসভা একাদশ

» এবার ঝিনাইদহ জেলার শ্রেষ্ঠ পুলিশ সার্জেন্ট নির্বাচিত মোঃ শাহারিয়ার ইসলাম

» চার বছর চাকরী করার পর শহ আলম জানলো তার চাকরী নেই !




প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ

বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

Info@ujjibitobd.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯,

বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, খ্রিষ্টাব্দ, ১লা আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আড়াইহাজার থানার ওসির কান্ড : মামলা না নিয়ে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ!

আড়াইহাজারে স্ত্রীকে আনতে শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে পুলিশের সামনেই হামলা শিকার হয়েছেন বর ও  বরের সঙ্গে থাকা আরো ৫ জন। 

 

হামলায় আহতরা হলেন, নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থানাধীন দেউলপাড়া এলাকার বর আরমান মোল্লা ও তার বাবা রমিজউদ্দিন মোল্লা, নিকট আত্মীয় আউলাদ হোসেন, সাইফুল ইসলাম,রাশেদ খান রাজু ও হারুন মোল্লা। 

 

আহতের উদ্ধার করে পুলিশ থানায় নিয়ে আসার পর স্থানীয় এক যুবলীগ নেতার কথায়  আহতদের মামলা না নিয়ে ফের লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছে আড়াইহাজার থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত (ওসি) পুলিশ পরিদর্শক শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে। এমনকি বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে নিজের ইচ্ছেমত একটি জিডি লিখে বরের কাছ থেকে স্বাক্ষর নিয়ে নেন তিনি।  
 
 
বর আরমান মোল্লা জানান, চলতি বছরের ২১মে নারায়ণগঞ্জ আদালত মোকাম বিজ্ঞ নোটারি পাবলিক কার্যালয়ে আড়াইহাজার উপজেলার গহরদী এলাকার প্রবাসী কবির হোসেনের মেয়ে স্বপ্না আক্তার (১৯) এর সঙ্গে ২ লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য্য করে ২০ হাজার টাকা ওয়াশিল দিয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই। 

 

বিবাহের পর কনের পরিবারের লোকজন মেনে নেয়। গত ২জুন কনের মা জোসনা বেগম ঈদ উপলক্ষে স্বপ্নাকে তার বাবার বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে আমার সঙ্গে আমার স্ত্রীর সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। ৪ জুন একটি মোবাইল নাম্বার থেকে আমাকে নানা ভাষায় হুমকী দিয়ে থাকেন। 

 

এর পর আমি ফতুল্লা মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করি। যাহার নং- ৩১০। তারিখ ৮-৬-১৯ইং। উক্ত ডাইয়েরীর বিষয়টি ফতুল্লা থানার ওসি আড়াইহাজার থানার ওসিকে অবহিত করেন।

 
তিনি জানান, রোববার বিকালে আড়াইহাজার থানার এসআই আতাউরসহ কনের বাড়িতে যান। এ সময় পুলিশের সামনেই আমার সঙ্গে থাকা বাবাসহ অন্যন্যদের ওপর হামলা চালানো হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে এসআই আমাদের উদ্ধার করে নিয়ে আসেন।

 
এ ঘটনায় মামলা করতে থানায় গেলে আড়াইহাজার থানার সাময়িক দায়িত্বপ্রাপ্ত (ওসি) পুলিশ পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম কনে পক্ষের পরিচিত এক স্থানীয় যুবলীগ নেতার সামনে লাহ্নিত করেন এবং বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে নিজের ইচ্ছেমত একটি জিডি লিখে আমার (বর) কাছ থেকে স্বাক্ষর নিয়ে নেন।

 
আরমান মোল্লা আরো জানান, থানার কর্তব্যরত ডিউটি অফিসারের রুমে স্থাপনকৃত সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ দেখলে এর সত্যতা পাওয়া যাবে।

 

এ বিষয়ে আড়াইহাজার থানার সাময়িক দায়িত্বপ্রাপ্ত (ওসি) পুলিশ পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম জানান তার বিরুদ্ধে আনিত এসব অভিযোগ সঠিক নহে। তারা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

 

-যুগের চিন্তা ২৪

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ

বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

Info@ujjibitobd.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯,

বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD