সামান্য শ্রমিক থেকে কোটিপতি সোনারগাঁয়ের শহীদুল

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের কোবাগা এলাকার বাসিন্দা আবুল কাসেমের ছেলে শহিদুল ইসলাম। তিনি মাত্র কয়েক বছর পূর্বে শ্রমিকের কাজ করেছেন। কয়েক বছরের ব্যবধানে তিনি কোটি কোটি টকার মালিক বনে গেছেন। তার আয়ের উৎস কি? কিভাবে তিনি অল্প সময়ে এত টাকার মালিক বনে গেছেন এসব প্রশ্ন এলাকাবাসীর মুখে মুখে। দূর্নীতি দমন কমিশন তার সম্পদের হিসেব দেখলেই আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে বলে মনে করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

 

এলাকাবাসীর সাথে আলাপকালে জানা যায়, কোবাগা গ্রামের শহিদুল ইসলাম এক সময়ে বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। হামলা মামলার ভয়ে আওয়ামীলীগের নেতাদের সাথে তালমিলিয়ে আওয়ামীলীগের নেতাদের নাম ভাঙ্গিয়ে জাহান এন্টার প্রাইজ নামের একটি সিমিন্টের দোকান ও কাউসার ইঞ্জিনিয়ারিং নামে একটি ওয়াকসপ দোকান চালিয়ে আসছেন। গত পাচ বছর পূর্বে যার ঘরে নূন আনতে পান্তা ফুড়াতো তিনি আজ অবৈধভাবে টাকার পাহাড় গড়েছেন। ধারনা করা হচ্ছে, তার মালিকানাধীন কাউসার ইঞ্চিনিয়ারিং ওয়ার্কসপে অবৈধভাবে দেশীয় অস্ত্রসহ বিভিন্ন সরংঞ্জাম তৈরী করেন তিনি । যার ফলে অতি অল্প সময়ে অবৈধভাবে এত সম্পদের মালিক হয়েছেন তিনি।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন এলাকাবাসী এই প্রতিবেদককে জানান, শহিদুল ইসলাম এলাকার একজন বখাটে ছেলে হিসেবে পরিচিত ছিলেন। পেটের দায়ে তিনি শ্রমিকের কাজ করেছেন। অবৈধভাবে কিভাবে এত অল্প সময়ে এত টাকার মালিক হয়েছেন তার সম্পদের বিবরণ দেখলেই যে কারোরই মাথা ঘুরে যাবে। অবিলম্বে দূর্নীতি দমন কমিশনসহ সরকারি বিভিন্ন দফতর তার সম্পদের হিসেব খোজ খবর নিলেই বেরিয়ে আসলে থলের বিড়াল। কালো টাকার পাহাড়ের রহস্য উন্মোচিত হবে সোনারগাঁবাসীর কাছে।

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সোনারগাঁ উপজেলা বিএনপির সভাপতি আজহারুল ইসলাম মান্নান জানান, শহিদুল ইসলাম ও তার বাবা আবুল কাসেম এক সময় বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। আওয়ামীলীগের ভয়ে তারা মুখ খুলতে পারছিলেন না। সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইঞ্চিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম জানান, আমাদের আওয়ামীলীগে নব্য নেতাদের স্থান হবে না। দলীয় নাম ভাঙ্গিয়ে কেউ অপকর্ম করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শহিদুল ইসলাম জানান, আমি ব্যবসা করে সম্পদ অর্জন করেছি। অবৈধভাবে কোন সম্পদ অর্জন করিনি।

 

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান জানান, শহিদুল ইসলামের বিষয়ে থানায় কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ফেসবুক মন্তব্য করুন

সর্বশেষ সংবাদ



» বেনাপোল সীমান্তে পিস্তল গুলিসহ আটক ১

» খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল থেকে মাদক সেবনের নানা উপকরণ উদ্ধার

» কৃষকদের ডিজিটাল পদ্ধতিতে কৃষি সেবা প্রদানের উদ্যোগ

» বেনাপোলে ভারতীয় গাঁজা সহ তিন মাদক ব্যবসায়ী আটক

» দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী-পলাশ

» শার্শা সীমান্তে সাড়ে তিন কোটি টাকার স্বর্ণ উদ্ধার, আটক ৩

» পাগলায় ঋণের টাকা জন্য গ্রাহককে মারধরের অভিযোগ

» বন্দরে মামলা তুলে নিতে বাদীকে পিটিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসী আফজাল গং

» মাকে পিটিয়ে জখম করল পাষন্ড ছেলে

» বন্দরে ২৭১টি মোবাইল সেটসহ দুই কালোবাজারি গ্রেপ্তার

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
নির্বাহী সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা সম্পাদক : ফয়সাল আহম্মেদ
সহ-বার্তা সম্পাদক : সেলিম হাওলাদার
editor.kuakatanews@gmail.com

প্রধান কার্যালয় : সৌদি ভিলা- চ ৩৫/৫ উত্তর বাড্ডা,
গুলশান, ঢাকা- ১২১২।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : সেহাচর, তক্কারমাঠ রোড, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।
ফোন : +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ০১৬৭৪৬৩২৫০৯
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯।

Email : ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২, খ্রিষ্টাব্দ, ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সামান্য শ্রমিক থেকে কোটিপতি সোনারগাঁয়ের শহীদুল

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের কোবাগা এলাকার বাসিন্দা আবুল কাসেমের ছেলে শহিদুল ইসলাম। তিনি মাত্র কয়েক বছর পূর্বে শ্রমিকের কাজ করেছেন। কয়েক বছরের ব্যবধানে তিনি কোটি কোটি টকার মালিক বনে গেছেন। তার আয়ের উৎস কি? কিভাবে তিনি অল্প সময়ে এত টাকার মালিক বনে গেছেন এসব প্রশ্ন এলাকাবাসীর মুখে মুখে। দূর্নীতি দমন কমিশন তার সম্পদের হিসেব দেখলেই আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে বলে মনে করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

 

এলাকাবাসীর সাথে আলাপকালে জানা যায়, কোবাগা গ্রামের শহিদুল ইসলাম এক সময়ে বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। হামলা মামলার ভয়ে আওয়ামীলীগের নেতাদের সাথে তালমিলিয়ে আওয়ামীলীগের নেতাদের নাম ভাঙ্গিয়ে জাহান এন্টার প্রাইজ নামের একটি সিমিন্টের দোকান ও কাউসার ইঞ্জিনিয়ারিং নামে একটি ওয়াকসপ দোকান চালিয়ে আসছেন। গত পাচ বছর পূর্বে যার ঘরে নূন আনতে পান্তা ফুড়াতো তিনি আজ অবৈধভাবে টাকার পাহাড় গড়েছেন। ধারনা করা হচ্ছে, তার মালিকানাধীন কাউসার ইঞ্চিনিয়ারিং ওয়ার্কসপে অবৈধভাবে দেশীয় অস্ত্রসহ বিভিন্ন সরংঞ্জাম তৈরী করেন তিনি । যার ফলে অতি অল্প সময়ে অবৈধভাবে এত সম্পদের মালিক হয়েছেন তিনি।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন এলাকাবাসী এই প্রতিবেদককে জানান, শহিদুল ইসলাম এলাকার একজন বখাটে ছেলে হিসেবে পরিচিত ছিলেন। পেটের দায়ে তিনি শ্রমিকের কাজ করেছেন। অবৈধভাবে কিভাবে এত অল্প সময়ে এত টাকার মালিক হয়েছেন তার সম্পদের বিবরণ দেখলেই যে কারোরই মাথা ঘুরে যাবে। অবিলম্বে দূর্নীতি দমন কমিশনসহ সরকারি বিভিন্ন দফতর তার সম্পদের হিসেব খোজ খবর নিলেই বেরিয়ে আসলে থলের বিড়াল। কালো টাকার পাহাড়ের রহস্য উন্মোচিত হবে সোনারগাঁবাসীর কাছে।

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সোনারগাঁ উপজেলা বিএনপির সভাপতি আজহারুল ইসলাম মান্নান জানান, শহিদুল ইসলাম ও তার বাবা আবুল কাসেম এক সময় বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। আওয়ামীলীগের ভয়ে তারা মুখ খুলতে পারছিলেন না। সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইঞ্চিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম জানান, আমাদের আওয়ামীলীগে নব্য নেতাদের স্থান হবে না। দলীয় নাম ভাঙ্গিয়ে কেউ অপকর্ম করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শহিদুল ইসলাম জানান, আমি ব্যবসা করে সম্পদ অর্জন করেছি। অবৈধভাবে কোন সম্পদ অর্জন করিনি।

 

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান জানান, শহিদুল ইসলামের বিষয়ে থানায় কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ফেসবুক মন্তব্য করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
নির্বাহী সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা সম্পাদক : ফয়সাল আহম্মেদ
সহ-বার্তা সম্পাদক : সেলিম হাওলাদার
editor.kuakatanews@gmail.com

প্রধান কার্যালয় : সৌদি ভিলা- চ ৩৫/৫ উত্তর বাড্ডা,
গুলশান, ঢাকা- ১২১২।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : সেহাচর, তক্কারমাঠ রোড, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।
ফোন : +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ০১৬৭৪৬৩২৫০৯
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯।

Email : ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD