কুয়াকাটার সেই স্কুল ছাত্রী মরিয়ম ১৫দিন পর জীবিত উদ্ধার

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সিনেমার কাহিনীকেও হার মানায় মরিয়ম (১৫) নামের এক স্কুল ছাত্র। পরিবারের সদস্যরা খালাতো ভাই এর সাথে বিয়ে দিতে চাইলে একটি রাজাহাস জবাই করে তার রক্ত আর মাংসের টুকরা ঘরের মেজেতে রেখে পালিয়ে যায় সে। যাতে সবাই বুঝতে পারে মরিয়মকে হত্যা পরবর্তী গুম করা হয়েছে। এ ঘটনায় মরিয়মের মা একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। তবে ঘটনার ১৫ দিন পর মরিয়মকে ঢাকা থেকে জীবিত উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে পটুয়াখালী পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এ সংক্রান্ত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বিস্তারিত জানানো হয়েছে।

 

পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মইনুল হাসান সাংবাদিকদের বলেন, ঢাকার মুগদা থানার মদিনা বাগের খালপাড় রোডস্থ রুনা ফ্যাশন নামের একটি গার্মেন্টে কর্মরত অবস্থায় ৫ অক্টোবর রাতে কথিত লাশ গুমের পরিকল্পনাকারী ও আত্মগোপনকারী মরিয়মকে উদ্ধার করা হয়েছে। মরিয়মের ইচ্ছের বিরুদ্ধে তার পরিবার এক খালাতো ভাইয়ের সাথে জোরপূর্বক বিয়ে দেবার আয়োজন করায় পালাতেই নিজেকে হত্যাকা-ের নাটক সাজায় মরিয়ম। ঘটনার রাতে বাড়ির একটি সাদা রংয়ের রাজাহাঁস জবাই করে তার বুকের দুই টুকরো মাংশ রক্ত ঘরে ছড়িয়ে ছিটিয়ে এবং পায়ের নূপুর ও অন্যান্য আলামত ঘরের মেজেতে রেখেই ঢাকার উদ্দেশ্যে পালিয়ে যায় মরিয়ম। ১৯ সেপ্টেম্বর ভোররাতে এসব পরিকল্পনা সবার অজান্তে সম্পাদন করে। এরপর সকালে কুয়াকাটা খানাবাদ কলেজ সংলগ্ন বাড়ি থেকে বেরিয়ে আলীপুরে হয়ে বাসযোগে প্রথমে কলাপাড়া পৌঁছায় মরিয়ম। ওইদিন সকাল ৮টার দিকে কলাপাড়া থেকে ঢাকাগামী ঈগল পরিবহনে ঢাকায় গিয়ে নিজেই গার্মেন্টন্সে কাজ খুঁজে নেয়। উদ্ধার হওয়া মরিয়মকে আদালতে সোপর্দ করার কথা জানিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, মরিয়ম এতই ধূর্ত যে, কারও সহায়তা ছাড়াই সে এই চাঞ্চল্যকর এবং দুঃসাহসিক পরিকল্পনা একাই সম্পন্ন করেছে।

 

জানা গেছে, মহিপুর হাই স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী মরিয়ম গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতের খাবার খেয়ে মায়ের পাশে ঘুমায়। সকালে তার মা নুরজাহান বেগম মেয়েকে না দেখে খুঁজতে বের হতেই ঘরের মেজেতে বিভিন্ন আলামত দেখতে পায়। ঘরে ছোপছোপ রক্ত, পায়ের নূপুর, দুই টুকরো মাংস, রক্তমাখা দুটি ছুড়ি পড়ে আছে মেজেতে। সবাই ধারনা করে, মরিয়মকে হত্যার পর তার লাশ গুম করা হয়েছে। এ ঘটনার পরদিন মহিপুর থানা পুলিশ মা’কে বাদী বানিয়ে একটি হত্যা মামলা গ্রহণ করে। ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টিকারী ঘটনায় সাংবাদিকদের পাশাপাশি পুলিশও প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে মাঠে নামে। এর সর্বশেষ কিনারা হয় মরিয়মকে উদ্ধার এবং পুলিশ সুপারের প্রেস ব্রিফিংয়ের মধ্য দিয়ে।

Facebook Comments

সর্বশেষ সংবাদ



» ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় সাপের কামড়ে সাপুরের মৃত্যু

» গলাচিপায় নাগমাতা সেবাশ্রমে ব্যাপক আয়োজনে মনসা পূজা

» আগৈলঝাড়ায় বিদেশী মদসহ দুই ব্যবসায়ি গ্রেফতার

» আগৈলঝাড়ায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন”ড্রেজার মেশিন বিনষ্ট ও দুই ব্যবসায়ীকে জরিমানা 

» ৫’শ ২৫ বছরের পুরোনো মনসা মন্দিরে বাৎসরিক পুজা অনুষ্ঠিত

» কলাপাড়ায় পরিচয়হীন এক বৃদ্ধা নারীর চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছে স্বাস্থ্যা কর্মকর্তা

» মৌলভীবাজারে সন্ত্রাসী হামলা- আহত-১

» বেনাপোল প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল থেকে ১৮ লাখ ভারতীয় রুপিসহ আটক-১

» বেনাপোল পোর্ট থানার অভিযানে ১০০ বোতল ফেন্সিডিল ও প্রাইভেটকারসহ আটক-২

» ঝিনাইদহের ২০ বছর বয়সী সেই শিশু চম্পা খাতুন পেলেন প্রতিবন্ধি ভাতা




প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

Info@ujjibitobd.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, খ্রিষ্টাব্দ, ৪ঠা ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কুয়াকাটার সেই স্কুল ছাত্রী মরিয়ম ১৫দিন পর জীবিত উদ্ধার

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সিনেমার কাহিনীকেও হার মানায় মরিয়ম (১৫) নামের এক স্কুল ছাত্র। পরিবারের সদস্যরা খালাতো ভাই এর সাথে বিয়ে দিতে চাইলে একটি রাজাহাস জবাই করে তার রক্ত আর মাংসের টুকরা ঘরের মেজেতে রেখে পালিয়ে যায় সে। যাতে সবাই বুঝতে পারে মরিয়মকে হত্যা পরবর্তী গুম করা হয়েছে। এ ঘটনায় মরিয়মের মা একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। তবে ঘটনার ১৫ দিন পর মরিয়মকে ঢাকা থেকে জীবিত উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে পটুয়াখালী পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এ সংক্রান্ত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বিস্তারিত জানানো হয়েছে।

 

পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মইনুল হাসান সাংবাদিকদের বলেন, ঢাকার মুগদা থানার মদিনা বাগের খালপাড় রোডস্থ রুনা ফ্যাশন নামের একটি গার্মেন্টে কর্মরত অবস্থায় ৫ অক্টোবর রাতে কথিত লাশ গুমের পরিকল্পনাকারী ও আত্মগোপনকারী মরিয়মকে উদ্ধার করা হয়েছে। মরিয়মের ইচ্ছের বিরুদ্ধে তার পরিবার এক খালাতো ভাইয়ের সাথে জোরপূর্বক বিয়ে দেবার আয়োজন করায় পালাতেই নিজেকে হত্যাকা-ের নাটক সাজায় মরিয়ম। ঘটনার রাতে বাড়ির একটি সাদা রংয়ের রাজাহাঁস জবাই করে তার বুকের দুই টুকরো মাংশ রক্ত ঘরে ছড়িয়ে ছিটিয়ে এবং পায়ের নূপুর ও অন্যান্য আলামত ঘরের মেজেতে রেখেই ঢাকার উদ্দেশ্যে পালিয়ে যায় মরিয়ম। ১৯ সেপ্টেম্বর ভোররাতে এসব পরিকল্পনা সবার অজান্তে সম্পাদন করে। এরপর সকালে কুয়াকাটা খানাবাদ কলেজ সংলগ্ন বাড়ি থেকে বেরিয়ে আলীপুরে হয়ে বাসযোগে প্রথমে কলাপাড়া পৌঁছায় মরিয়ম। ওইদিন সকাল ৮টার দিকে কলাপাড়া থেকে ঢাকাগামী ঈগল পরিবহনে ঢাকায় গিয়ে নিজেই গার্মেন্টন্সে কাজ খুঁজে নেয়। উদ্ধার হওয়া মরিয়মকে আদালতে সোপর্দ করার কথা জানিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, মরিয়ম এতই ধূর্ত যে, কারও সহায়তা ছাড়াই সে এই চাঞ্চল্যকর এবং দুঃসাহসিক পরিকল্পনা একাই সম্পন্ন করেছে।

 

জানা গেছে, মহিপুর হাই স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী মরিয়ম গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতের খাবার খেয়ে মায়ের পাশে ঘুমায়। সকালে তার মা নুরজাহান বেগম মেয়েকে না দেখে খুঁজতে বের হতেই ঘরের মেজেতে বিভিন্ন আলামত দেখতে পায়। ঘরে ছোপছোপ রক্ত, পায়ের নূপুর, দুই টুকরো মাংস, রক্তমাখা দুটি ছুড়ি পড়ে আছে মেজেতে। সবাই ধারনা করে, মরিয়মকে হত্যার পর তার লাশ গুম করা হয়েছে। এ ঘটনার পরদিন মহিপুর থানা পুলিশ মা’কে বাদী বানিয়ে একটি হত্যা মামলা গ্রহণ করে। ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টিকারী ঘটনায় সাংবাদিকদের পাশাপাশি পুলিশও প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে মাঠে নামে। এর সর্বশেষ কিনারা হয় মরিয়মকে উদ্ধার এবং পুলিশ সুপারের প্রেস ব্রিফিংয়ের মধ্য দিয়ে।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

Info@ujjibitobd.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD