রিমান্ডে বেরিয়ে আসছে ক্যাসিনো ব্যবসার গডফাদারের নাম: তথ্য দিচ্ছেন খালেদ

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

১৫ থেকে ২০ জনের নিয়ন্ত্রণে রাজধানীর ক্যাসিনো ব্যবসা। আর এসবের গডফাদার যুবলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন সম্রাট। সহযোগীর তালিকায় আছেন কিছু পুলিশ কর্মকর্তাও। প্রতিদিন চাঁদা যেতো স্থানীয় থানাগুলোতে। গোয়েন্দা পুলিশের রিমান্ডে এসব তথ্য দিয়েছেন যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া। সবার অলক্ষ্যে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অনেকদিন ধরেই চলছিলো ক্যাসিনো ব্যবস্যা। গেল বুধবার এরই কয়েকটিতে অভিযান চলায় র‍্যাব। জব্দ করে অত্যাধুনিক স্লট মেশিন, রোলেটসহ ক্যাসিনো খেলার নানা সরঞ্জাম, টাকা ও মা*দক। সবমিলিয়ে আটক হন ২শ’ জনের বেশি।

 

একই সঙ্গে গুলশান থেকে গ্রেফতার করা হয়, যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে। শুক্রবার গ্রেফতার হন আরেক যুবলীগ নেতা জি কে শামীম। দুজনই এখন রিমান্ডে গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে। গোয়েন্দা সূত্র জানায়, রিমান্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া। জানিয়েছেন, গডফাদার যুবলীগ নেতা সম্রাটের সাথে রয়েছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা কাউসার মোল্লা ও সাঈদ। জি কে শামীমও ক্যাসিনো সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত। অনেক পুলিশ সদস্যের নামও বলেছেন খালেদ। পুলিশ জানায়, জি কে শামীমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। অভিযোগ বিষয়ে কথা বলতে সম্রাটের খোঁজে তার কাকরাইলের কার্যালয়ের গিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি। র‍্যাব বলছে, অভিযান অব্যহত থাকবে। যাদের নাম নতুন করে আসছে, প্রমাণ মিললে তাদেরও ধরা হবে।

 

র‍্যাব জানায়, কেউ ধরাছোঁয়ার বাইরে যাবে না। কোন ভাবেই সম্ভব না। আমরা তথ্য গ্রহণ করছি। যারা ওইসব ব্যবসা থেকে লাভ গ্রহণ করেছে, অবশ্যই সবাই আমাদের আইনের আওতায় চলে আসবে। রাজধানীর এক অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমান্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বাংলাদেশে ক্যাসিনো অবৈধ। এ বেআইনি ব্যবসা কাউকে করতে দেয়া হবে না। আর কৃষিমন্ত্রী বলেছেন, অপরাধী যেই হোক তার ছাড় নেই। কেউ এই ব্যবসা করবেন না। সে যেই হোক, রাজনৈতিক নেতা হোক, সমাজের কোন প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তি হোক। কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, অপরাধী যেই হোক তার ছাড় নেই।

 

ভিডিও : চ্যানেল ২৪

Facebook Comments

সর্বশেষ সংবাদ



» ২জুন থেকে জমে উঠবে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম বাজার

»  আজ সাংবাদিক কন্যা সুমাইয়া আক্তারের জন্মদিন

» ফতুল্লা মানব কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে মসজিদে জীবানুনাশক সামগ্রী বিতরণ

» ডিএনসির পৃথক মাদকবিরোধী অভিযানে ১০৪ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তার-২

» চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রলির ধাক্কায় ১ জন গুরুতর আহতসহ নিহত-১

» বনগাঁর চাঁদাবাজিতে বন্ধ বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি রপ্তানি বানিজ্য

»  বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবলু চৌধুরী’র মৃত্যুতে পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি মাহবুবের শোক

» বীর মুক্তিযোদ্ধা আবিদ উদ্দীন ওরফে হাবলু চৌধুরীর ইন্তেকাল

» করোনা আক্রান্ত’র বাড়িতে খাদ্য ও ঔষধ পৌঁছে দিল ইউএনও মারুফুল আলম

» সুন্দরবন উপকূলে বৈরী আবহাওয়া মোংলাবন্দরে পণ্য খালাস কাজ ব্যাহত




প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির
editor.kuakatanews@gmail.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯ ,

বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : শনিবার, ৩০ মে ২০২০, খ্রিষ্টাব্দ, ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রিমান্ডে বেরিয়ে আসছে ক্যাসিনো ব্যবসার গডফাদারের নাম: তথ্য দিচ্ছেন খালেদ

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

১৫ থেকে ২০ জনের নিয়ন্ত্রণে রাজধানীর ক্যাসিনো ব্যবসা। আর এসবের গডফাদার যুবলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন সম্রাট। সহযোগীর তালিকায় আছেন কিছু পুলিশ কর্মকর্তাও। প্রতিদিন চাঁদা যেতো স্থানীয় থানাগুলোতে। গোয়েন্দা পুলিশের রিমান্ডে এসব তথ্য দিয়েছেন যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া। সবার অলক্ষ্যে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অনেকদিন ধরেই চলছিলো ক্যাসিনো ব্যবস্যা। গেল বুধবার এরই কয়েকটিতে অভিযান চলায় র‍্যাব। জব্দ করে অত্যাধুনিক স্লট মেশিন, রোলেটসহ ক্যাসিনো খেলার নানা সরঞ্জাম, টাকা ও মা*দক। সবমিলিয়ে আটক হন ২শ’ জনের বেশি।

 

একই সঙ্গে গুলশান থেকে গ্রেফতার করা হয়, যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে। শুক্রবার গ্রেফতার হন আরেক যুবলীগ নেতা জি কে শামীম। দুজনই এখন রিমান্ডে গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে। গোয়েন্দা সূত্র জানায়, রিমান্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া। জানিয়েছেন, গডফাদার যুবলীগ নেতা সম্রাটের সাথে রয়েছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা কাউসার মোল্লা ও সাঈদ। জি কে শামীমও ক্যাসিনো সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত। অনেক পুলিশ সদস্যের নামও বলেছেন খালেদ। পুলিশ জানায়, জি কে শামীমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। অভিযোগ বিষয়ে কথা বলতে সম্রাটের খোঁজে তার কাকরাইলের কার্যালয়ের গিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি। র‍্যাব বলছে, অভিযান অব্যহত থাকবে। যাদের নাম নতুন করে আসছে, প্রমাণ মিললে তাদেরও ধরা হবে।

 

র‍্যাব জানায়, কেউ ধরাছোঁয়ার বাইরে যাবে না। কোন ভাবেই সম্ভব না। আমরা তথ্য গ্রহণ করছি। যারা ওইসব ব্যবসা থেকে লাভ গ্রহণ করেছে, অবশ্যই সবাই আমাদের আইনের আওতায় চলে আসবে। রাজধানীর এক অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমান্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বাংলাদেশে ক্যাসিনো অবৈধ। এ বেআইনি ব্যবসা কাউকে করতে দেয়া হবে না। আর কৃষিমন্ত্রী বলেছেন, অপরাধী যেই হোক তার ছাড় নেই। কেউ এই ব্যবসা করবেন না। সে যেই হোক, রাজনৈতিক নেতা হোক, সমাজের কোন প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তি হোক। কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, অপরাধী যেই হোক তার ছাড় নেই।

 

ভিডিও : চ্যানেল ২৪

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির
editor.kuakatanews@gmail.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯ ,

বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD