আমার সাথে ছয়টি নারী জ্বীন থাকে: চারটি আমাকে মারধর করে

কুমিল্লার হোমনা উপজেলার ঘারমোড়া হাদির খাল এলাকায় আজ শুক্রবার বিকেলে ঘটে যায় এক অদ্ভূত কাণ্ড। মো. নাসির (৩০) নামের এক ব্যক্তি হঠাৎ উঠে যান জাতীয় গ্রিডের হাই ভোল্টেজ বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের ১৫০ ফুট উঁচু টাওয়ারের একেবারে চূড়ায়। টাওয়ারের চূড়ায় ওঠার কিছুক্ষণ পর ওপর থেকেই নাসির একজনকে আজান দিতে বলেন। শাহ পরান নামের এক যুবক আজান দিলে নাসির নিজে নিজেই ওপর থেকে নেমে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন।

 

সুস্থ হয়ে মো. নাসির বলেন, ‘আমার সাথে ছয়টি নারী জ্বীন থাকে, চারটি আমাকে অনেক মারধর করে। এদের কথা না শুনলে ব্লেড দিয়ে আমার শরীর কেটে রক্ত খায়। আমাকে মেরে ফেলার জন্য কয়েকবার বিদ্যুতের টাওয়ারে তুলেছে। জ্বীনদের মধ্যে দুটি ভালো, তারা আজান দিতে বললে আজানের ধ্বনি শুনে চারজন চলে যায়। দুজন আমাকে নিরাপদে নামিয়ে দিয়ে যায়।

 

নাসির আরও বলেন, ‘গতকাল আমি তিতাস উপজেলায় বেড়াতে এসেছিলাম। আমি গরুর মাংস খাওয়ার কারণে আমাকে মেরে ফেলার জন্য কারেন্টের টাওয়ারে উঠিয়েছে। পরে আজান দেওয়ার পর ভালো দুজন আমাকে নিচে নামিয়ে দিয়েছে। আমি সুস্থ আছি। এক সময় এরা আমার মায়ের সঙ্গে ছিল। আমার মাকে মেরে ফেলেছে। এরপর আমার ওপর সওয়ার হয়েছে। নাসিরের বাবা ফোনে বলেন, ‘তার (নাসির) ওপর জ্বীনের আছর আছে। ছোটবেলা থেকেই সে এ রোগে ভুগছে। জ্বীন চলে গেলে সে নিজে নিজেই চলে আসতে পারবে।

 

এ বিষয়ে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৩-এর ডিজিএম আক্তার হোসেন বলেন, ‘নাসির যখন টাওয়ারের চূড়ায় ওঠেন, তখনো বিদ্যুৎ ছিল। খবর পেয়ে যোগাযোগ করি পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি বাংলাদেশের সঙ্গে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। তাকে দেখতে হাসপাতালে গেছেন হোমনা ইউএনও তাপ্তি চাকমা। তার সুচিকিৎসার পরামর্শ দিয়েছেন ডাক্তারদের।

 

হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত আবাসিক চিকিৎসক মো. শহিদুল্লাহ বলেন, ‘ছেলেটির মানসিক সমস্যা থাকতে পারে। একজন সুস্থ মানুষ কখনই বৈদ্যুতিক টাওয়ারের চূড়ায় ওঠবে না। মো. নাসিরের বাড়ি নোয়াখালি সেনবাগ উপজেলার ইয়ারপুর গ্রামে। তিনি বেড়াতে এসেছিলেন কুমিল্লার তিতাসে।

 

 

Facebook Comments

সর্বশেষ সংবাদ



» বিজিবি’র হাতে আটক ভারতীয় সেই জেলে কারাগারে

» কানাডার ফেডারেল নির্বাচনে বাংলাদেশি আফরোজা

» শিক্ষামন্ত্রীর অনুরোধে অনশন কর্মসূচি স্থগিত

» চলাচলের রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি রাজনগরে ব্যবসায়ীকে মামলা দিয়ে হয়রানি

» শিশু হত্যাকারীদের কঠোর সাজা পেতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

» গোসাইরহাটে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে কথিত দুই সাংবাদিক আটক

» ফের নেহার গানে নেচে ঝড় তুললেন প্রণীতা (ভিডিওসহ)

» অনেকেই তো পেয়েছেন ক্যাসিনোর টাকা, শুধু আমি কেন: জিজ্ঞাসাবাদে সম্রাট

» যুবলীগের চেয়ারম্যানের গণভবনে যাওয়া নিষেধ!

» প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন ফিফা প্রেসিডেন্ট




প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ

উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির

Info@ujjibitobd.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯,

বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, খ্রিষ্টাব্দ, ৩রা কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আমার সাথে ছয়টি নারী জ্বীন থাকে: চারটি আমাকে মারধর করে

কুমিল্লার হোমনা উপজেলার ঘারমোড়া হাদির খাল এলাকায় আজ শুক্রবার বিকেলে ঘটে যায় এক অদ্ভূত কাণ্ড। মো. নাসির (৩০) নামের এক ব্যক্তি হঠাৎ উঠে যান জাতীয় গ্রিডের হাই ভোল্টেজ বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের ১৫০ ফুট উঁচু টাওয়ারের একেবারে চূড়ায়। টাওয়ারের চূড়ায় ওঠার কিছুক্ষণ পর ওপর থেকেই নাসির একজনকে আজান দিতে বলেন। শাহ পরান নামের এক যুবক আজান দিলে নাসির নিজে নিজেই ওপর থেকে নেমে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন।

 

সুস্থ হয়ে মো. নাসির বলেন, ‘আমার সাথে ছয়টি নারী জ্বীন থাকে, চারটি আমাকে অনেক মারধর করে। এদের কথা না শুনলে ব্লেড দিয়ে আমার শরীর কেটে রক্ত খায়। আমাকে মেরে ফেলার জন্য কয়েকবার বিদ্যুতের টাওয়ারে তুলেছে। জ্বীনদের মধ্যে দুটি ভালো, তারা আজান দিতে বললে আজানের ধ্বনি শুনে চারজন চলে যায়। দুজন আমাকে নিরাপদে নামিয়ে দিয়ে যায়।

 

নাসির আরও বলেন, ‘গতকাল আমি তিতাস উপজেলায় বেড়াতে এসেছিলাম। আমি গরুর মাংস খাওয়ার কারণে আমাকে মেরে ফেলার জন্য কারেন্টের টাওয়ারে উঠিয়েছে। পরে আজান দেওয়ার পর ভালো দুজন আমাকে নিচে নামিয়ে দিয়েছে। আমি সুস্থ আছি। এক সময় এরা আমার মায়ের সঙ্গে ছিল। আমার মাকে মেরে ফেলেছে। এরপর আমার ওপর সওয়ার হয়েছে। নাসিরের বাবা ফোনে বলেন, ‘তার (নাসির) ওপর জ্বীনের আছর আছে। ছোটবেলা থেকেই সে এ রোগে ভুগছে। জ্বীন চলে গেলে সে নিজে নিজেই চলে আসতে পারবে।

 

এ বিষয়ে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৩-এর ডিজিএম আক্তার হোসেন বলেন, ‘নাসির যখন টাওয়ারের চূড়ায় ওঠেন, তখনো বিদ্যুৎ ছিল। খবর পেয়ে যোগাযোগ করি পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি বাংলাদেশের সঙ্গে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। তাকে দেখতে হাসপাতালে গেছেন হোমনা ইউএনও তাপ্তি চাকমা। তার সুচিকিৎসার পরামর্শ দিয়েছেন ডাক্তারদের।

 

হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত আবাসিক চিকিৎসক মো. শহিদুল্লাহ বলেন, ‘ছেলেটির মানসিক সমস্যা থাকতে পারে। একজন সুস্থ মানুষ কখনই বৈদ্যুতিক টাওয়ারের চূড়ায় ওঠবে না। মো. নাসিরের বাড়ি নোয়াখালি সেনবাগ উপজেলার ইয়ারপুর গ্রামে। তিনি বেড়াতে এসেছিলেন কুমিল্লার তিতাসে।

 

 

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ

উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির

Info@ujjibitobd.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯,

বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD