নারায়ণগঞ্জে ডিবির বিরুদ্ধে তেল ব্যবসায়ীর মামলা

উজ্জীবিত বিডি রিপোর্ট:- চাঁদা না দেয়ায় গোডাউনের তালা ভেঙ্গে ৭২ বেরেল তেল নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ এনে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের দুই অফিসার ও তাদের সোর্স আনোয়ারের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

 

গত বুধবার (১২ মার্চ) নারায়ণগঞ্জের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী “খ” অঞ্চল আদালতে মামলাটি দায়ের করেন তেল ব্যবসায়ী ফতুল্লার ইকবাল চৌধুরী।

 

মামলায় ডিবি’র সোর্স আনোয়ারকে প্রধান আসামী করে ডিবি পুলিশের এস.আই আলমগীর ও এ.এস.আই জাহাঙ্গীকে আসামী করা হয়েছে।

 

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, মামলার বাদী ইকবাল চৌধুরী ফতুল্লা বালুর ঘাট এলাকায় চৌধুরী এন্টারপ্রাইজ নামে লাইসেন্সকৃত প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তেলের ব্যবসা করে আসছে। ১০ মার্চ (রোববার) বিকেল ৫টার দিকে ডিবি পুলিশের এস.আই আলমগীর ও এ.এস আই জাহাঙ্গীর একটি হাইয়েস গাড়ী নিয়ে ইকবাল চৌধুরীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আসে। এসময় তাদের সাথে সোর্স আনোয়ার ছিলো। প্রতিষ্ঠানে ইকবাল চৌধুরী না থাকায় তার ভাই রুবেল চৌধুরীর কাছে ইকবাল চৌধুরীর খোঁজ চায় তারা। একপর্যায়ে তাদের কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় এস.আই আলমগীর, এ.এস.আই জাহাঙ্গীর ও সোর্স আনোয়ার ওই প্রতিষ্ঠানের গোডাউনের তালা ভেঙ্গে সেখান থেকে ৭২ বেরেল তেল বের করে ৩টি ট্রাকে উঠিয়ে নিয়ে যায়।

 

ব্যবসায়ী ইকবাল চৌধুরীর দাবি, তিনি অনুমোদন নিয়েই তেল মজুদ করে ছিলেন এবং বৈধ ভাবে তেলের ব্যবসা পরিচালনা করছেন।

 

অন্যদিকে, অভিযানে ৫৭ ড্রাম চোরাই জ্বালানি তেল জব্দ করা হয় বলে দাবী করছে ডিবি। উক্ত ৫৭ ড্রামের মধ্যে ৭ হাজার ৬’শ লিটার ডিজেল, ৩ হাজার ৬০ লিটার অকটেন ও ৩’শ ৬০ লিটার পেট্রোল মজুদ আছে বলে জানায় পুলিশ। চোরাই তেল উদ্ধারের ঘটনায় ডিবির এসআই আব্দুল জলিল মাতুব্বর বাদী হয়ে ফতুল্লা থানায় গোডাউনের মালিক ইকবাল হোসেন চৌধুরী সহ রুবেল, কামাল হোসেন, লোকমান হোসেন রাসেল, ইব্রাহিম সহ ১৫/১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

 

এদিকে, ডিবি পুলিশের অভিযানের পর উল্টো ডিবির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করায় আলোচনা সমালোচনার ঝর বইছে সর্বত্র।

 

এই প্রসঙ্গে বিবৃতি দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ।

 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আসামীরা দীর্ঘদিন যাবৎ একটি সিন্ডিকেট তৈরি করে পরস্পর যোগসাজসে বাংলাদেশ সরকারকে শুল্ক/কর ফাঁকি দিয়ে এবং জাহাজ থেকে চুরি করে পেট্রোল, অকটেন, ডিজেল অবৈধ ভাবে মজুদ রেখে তা প্রকাশ্যে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিলো। জানা যায় যে, উক্ত সিন্ডিকেটদের পিছনে অনেক স্বার্থান্বেষী মহল যক্ত আছে ও নিয়মিত মাসোয়ারা পায়।

 

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পুলিশের এই অভিযানকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য ঘোষিত তেল চোরাকারবারীদের অন্যতম সদস্য পলাতক আসামী ইকবাল হোসেন (৪৭) তার গডফাদারদের ও স্বার্থান্বেষী মহলকে বাঁচানোর জন্য এবং পুলিশের এই অভিযানকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য, পুলিশের মনোবলকে ভাঙ্গার জন্য কতিপয় পুলিশ অফিসারের নামে মিথ্যা বানোয়াট তথ্য, উপাত্ত বিহীন মনগড়া একটি পিটিশন বিজ্ঞ চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট বরাবর আবেদন করেন। উক্ত পিটিশনটি প্রাথমিক তদন্তের জন্য বিজ্ঞ আদালত পিবিআইকে নির্দেশ প্রদান করেন।

Facebook Comments

সর্বশেষ সংবাদ



» ফতুল্লায় গ্রাম পুলিশ মোস্তফা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে থানায় জিডি

» ফতুল্লায় সাধারন মানুষের আতংক সোর্স আসিফ ও নিশাদ

» এসএসসি পরীক্ষায় মারাত্মক ফল বিপর্যয় কুড়েরপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ে

» গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদের দেড় কোটি টাকার বাজেট ঘোষনা

» ফতুল্লা থানা ও ডিবি পুলিশের অভিযানে মাদকসহ গ্রেপ্তার-৮

» আজ মাগফিরাতের ৭ম দিবস সালাত আদায় করলে আল্লাহপাকের পাঁচটি পুরস্কার

» বিশ্বকাপে অপরিবর্তিত দল নিয়েই খেলবে বাংলাদেশ

» মেঘনায় কার্গো জাহাজের ধাক্কায় তলা ফেটে গেল যাত্রীবোঝাই লঞ্চের

» ‘মোস্তাফিজ পুরোনো রূপে ফিরলে যে কারো জন্য হুমকি হবে’

» ফতুল্লায় হিরোইনসহ গ্রেফতার-৪



প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ

সহ- সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

বার্তা সম্পাদক: সাদ্দাম হো‌সেন শুভ

উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

 

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD



আজ : বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯, খ্রিষ্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

নারায়ণগঞ্জে ডিবির বিরুদ্ধে তেল ব্যবসায়ীর মামলা

উজ্জীবিত বিডি রিপোর্ট:- চাঁদা না দেয়ায় গোডাউনের তালা ভেঙ্গে ৭২ বেরেল তেল নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ এনে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের দুই অফিসার ও তাদের সোর্স আনোয়ারের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

 

গত বুধবার (১২ মার্চ) নারায়ণগঞ্জের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী “খ” অঞ্চল আদালতে মামলাটি দায়ের করেন তেল ব্যবসায়ী ফতুল্লার ইকবাল চৌধুরী।

 

মামলায় ডিবি’র সোর্স আনোয়ারকে প্রধান আসামী করে ডিবি পুলিশের এস.আই আলমগীর ও এ.এস.আই জাহাঙ্গীকে আসামী করা হয়েছে।

 

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, মামলার বাদী ইকবাল চৌধুরী ফতুল্লা বালুর ঘাট এলাকায় চৌধুরী এন্টারপ্রাইজ নামে লাইসেন্সকৃত প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তেলের ব্যবসা করে আসছে। ১০ মার্চ (রোববার) বিকেল ৫টার দিকে ডিবি পুলিশের এস.আই আলমগীর ও এ.এস আই জাহাঙ্গীর একটি হাইয়েস গাড়ী নিয়ে ইকবাল চৌধুরীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আসে। এসময় তাদের সাথে সোর্স আনোয়ার ছিলো। প্রতিষ্ঠানে ইকবাল চৌধুরী না থাকায় তার ভাই রুবেল চৌধুরীর কাছে ইকবাল চৌধুরীর খোঁজ চায় তারা। একপর্যায়ে তাদের কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় এস.আই আলমগীর, এ.এস.আই জাহাঙ্গীর ও সোর্স আনোয়ার ওই প্রতিষ্ঠানের গোডাউনের তালা ভেঙ্গে সেখান থেকে ৭২ বেরেল তেল বের করে ৩টি ট্রাকে উঠিয়ে নিয়ে যায়।

 

ব্যবসায়ী ইকবাল চৌধুরীর দাবি, তিনি অনুমোদন নিয়েই তেল মজুদ করে ছিলেন এবং বৈধ ভাবে তেলের ব্যবসা পরিচালনা করছেন।

 

অন্যদিকে, অভিযানে ৫৭ ড্রাম চোরাই জ্বালানি তেল জব্দ করা হয় বলে দাবী করছে ডিবি। উক্ত ৫৭ ড্রামের মধ্যে ৭ হাজার ৬’শ লিটার ডিজেল, ৩ হাজার ৬০ লিটার অকটেন ও ৩’শ ৬০ লিটার পেট্রোল মজুদ আছে বলে জানায় পুলিশ। চোরাই তেল উদ্ধারের ঘটনায় ডিবির এসআই আব্দুল জলিল মাতুব্বর বাদী হয়ে ফতুল্লা থানায় গোডাউনের মালিক ইকবাল হোসেন চৌধুরী সহ রুবেল, কামাল হোসেন, লোকমান হোসেন রাসেল, ইব্রাহিম সহ ১৫/১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

 

এদিকে, ডিবি পুলিশের অভিযানের পর উল্টো ডিবির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করায় আলোচনা সমালোচনার ঝর বইছে সর্বত্র।

 

এই প্রসঙ্গে বিবৃতি দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ।

 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আসামীরা দীর্ঘদিন যাবৎ একটি সিন্ডিকেট তৈরি করে পরস্পর যোগসাজসে বাংলাদেশ সরকারকে শুল্ক/কর ফাঁকি দিয়ে এবং জাহাজ থেকে চুরি করে পেট্রোল, অকটেন, ডিজেল অবৈধ ভাবে মজুদ রেখে তা প্রকাশ্যে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিলো। জানা যায় যে, উক্ত সিন্ডিকেটদের পিছনে অনেক স্বার্থান্বেষী মহল যক্ত আছে ও নিয়মিত মাসোয়ারা পায়।

 

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পুলিশের এই অভিযানকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য ঘোষিত তেল চোরাকারবারীদের অন্যতম সদস্য পলাতক আসামী ইকবাল হোসেন (৪৭) তার গডফাদারদের ও স্বার্থান্বেষী মহলকে বাঁচানোর জন্য এবং পুলিশের এই অভিযানকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য, পুলিশের মনোবলকে ভাঙ্গার জন্য কতিপয় পুলিশ অফিসারের নামে মিথ্যা বানোয়াট তথ্য, উপাত্ত বিহীন মনগড়া একটি পিটিশন বিজ্ঞ চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট বরাবর আবেদন করেন। উক্ত পিটিশনটি প্রাথমিক তদন্তের জন্য বিজ্ঞ আদালত পিবিআইকে নির্দেশ প্রদান করেন।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ





সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ

সহ- সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

বার্তা সম্পাদক: সাদ্দাম হো‌সেন শুভ

উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

 

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD