হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে সুজাপুর বিল নিয়ে দু’পক্ষের মূখোমুখি অবস্থা সংঘর্ষের আশংখ্যা

ফরিদ আহমদ শিকদার:-  হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার সুজাপুর বেরী বিল নিয়ে দু’পক্ষ মূখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। বড় ধরনের সংঘষের্র আশংখ্যা স্থানীয়দের। গত ২/৩ দিন ধরে টানটান উত্তেজনার মধ্যে আতংকের রয়েছে গ্রামবাসী। গতকাল মঙ্গলবার শান্তি শৃংখলা বজায় রাখতে উভয় পক্ষকে আদালতের নিদের্শে নোটিশ জারি করেছেন থানা পুলিশ। স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, উপজেলার বাউসা ইউপির সুজাপুর বেরী বিল নামক জলমহালটি ১৪২৬-১৪৩১ বাংলা সনের জন্য উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় লীজ প্রাপ্ত হন মায়ের দোয়া মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ। গ্রামবাসীকে ফাসঁ কাটিয়ে ২৯ জন সদস্য নিয়ে উক্ত সমিতি গঠন করেন ওই গ্রামের স্কুল শিক্ষক আব্দুল লতিফ। তবে আব্দুল লতিফ কৌশলে নিজে সমিতির সদস্য ভুক্ত না হলেও ২৯ জনের মধ্যে তার নিজের আত্মীয় স্বজন রাখেন প্রায় ২০ জন। সমিতির সভাপতি আবু মিয়া ও সাধারন সম্পাদক আব্দুল জলিল লতিফের নিকট আত্মীয়। এদিকে উক্ত বেরী বিল নামক জলমহালটি যুগ ুযগ ধরে বিলের পাড়ে অবস্থিত সুজাপুর গ্রামবাসী সম্মিলিত ভাবে গঠিত সুজাপুর মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লীজ এনে ফিশিং করে আসছিল। সম্প্রতি সুজাপুর গ্রামের বাসিন্দা সিলেটের বিশ^নাথ উপজেলায় এমপিও ভুক্ত একটি হাইস্কুলের শিক্ষক আব্দুল লতিফ তার বড় ভাই আব্দুল জলিলকে সাধারন সম্পাদক এবং নিকট আত্মীয় আবু মিয়াকে সভাপতি করে ২৯ সদস্য বিশিষ্ট মায়ের দোয়া মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ নামে সমিতি গঠন করেন। উক্ত সমিতি ১৪২৬-১৪৩১ বাংলা সন পর্যন্ত লীজ প্রাপ্ত হয়ে সমিতির অন্যান্য সদস্যদের না জানিয়ে বার আনা শিয়ার শিক্ষক আব্দুল লতিফের নামে বিক্রি করা হয়। এতে বাধা সাধেন সমিতির অপর ৬ সদস্য। এক পর্যায়ে বঞ্চিত ৬ সদস্য আইন অনুযায়ী তাদের হিস্যায় প্রাপ্ত চার আনা শিয়ার দাবী করলে শিক্ষক আব্দুল লতিফ এবং সমিতির সভাপতি-সাধারন সম্পাদক দিতে অনিহা প্রকাশ করেন। ফলে বঞ্চিত ৬ সদস্য গ্রামবাসীর কাছে তাদের প্রাপ্ত শিয়ার হস্তান্তর করে বিল ফিসিংয়ে সহায়তা কামনা করেন। মৎস্যজীবি হিসেবে খ্যাত বেরী বিলের অধিকার থেকে বঞ্চিত সুজাপুর গ্রামবাসী এতে সায় দেন। ফলে উভয় পক্ষই বিল ফিশিংয়ের জন্য খলা ঘর তৈরী করে মাছ ধরার জালসহ সরঞ্জামাধি তৈরী করেন। এদিকে সমিতির সুবিধা বঞ্চিত ৬ সদস্যের পক্ষে কনা মিয়া বাদী হয়ে হবিগঞ্জের বিজ্ঞ আদালতে ১৪৪ ধারায় মামলা দায়ের করেন। আদালত আইনশৃংখলা রক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ওসি নবীগঞ্জকে নিদের্শ প্রদান করেন। এ অবস্থায় স্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টি না হওয়া পর্যন্ত কোন পক্ষই যাতে বিল ফিশিংয়ে যেতে না পারে এ ব্যাপারে প্রশাসনসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা শান্তি প্রিয় এলাকাবাসীর।

Facebook Comments

সর্বশেষ সংবাদ



» ফতুল্লায় লবণ নিয়ে লঙ্কাকান্ড গুজবের পিছনে ছুটছে সবাই

» মৌলভীবাজারে লবণের দাম বেশি নেওয়ায় ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তর কর্তৃক জরিমানা

» লবণ মুল্যে বৃদ্ধির গুজব ও অবৈধ মজুদ রোধে অভিযানে পুলিশ- আটক ১

» নবনিযুক্ত নির্বাহী অফিসার মর্তুজা আল মুইদ কে ফুল দিয়ে সংবর্ধনা জানালেন ডামুড্যা প্রেসক্লাব

» চাঁপাইনবাবগঞ্জে পর্যাপ্ত পরিমান লবন মজুদ আছে চলবে আগামী ৬ মাস

» বেনাপোল বাজারে লবণের দাম বৃদ্ধি গুজবে ক্রেতাদের ভিড়

»  লবন বিক্রেতা ও ক্রেতাকে ৪১ হাজার টাকা জরিমানা

» সাংবাদিক নয়নের মৃত্যুতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা প্রেস ক্লাবের শোক

» পাগলায় আফসার করিম প্লাজার ব্যবসায়ী সমিতির পুর্নাঙ্গ কমিটি গঠন

» নারায়ণগঞ্জের বক্তাবলীতে আবারো উত্তেজনা দুই হাজী গ্রুপের মাঝ’ আটক-৩




প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ

উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির

Info@ujjibitobd.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯,

বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, খ্রিষ্টাব্দ, ৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে সুজাপুর বিল নিয়ে দু’পক্ষের মূখোমুখি অবস্থা সংঘর্ষের আশংখ্যা

ফরিদ আহমদ শিকদার:-  হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার সুজাপুর বেরী বিল নিয়ে দু’পক্ষ মূখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। বড় ধরনের সংঘষের্র আশংখ্যা স্থানীয়দের। গত ২/৩ দিন ধরে টানটান উত্তেজনার মধ্যে আতংকের রয়েছে গ্রামবাসী। গতকাল মঙ্গলবার শান্তি শৃংখলা বজায় রাখতে উভয় পক্ষকে আদালতের নিদের্শে নোটিশ জারি করেছেন থানা পুলিশ। স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, উপজেলার বাউসা ইউপির সুজাপুর বেরী বিল নামক জলমহালটি ১৪২৬-১৪৩১ বাংলা সনের জন্য উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় লীজ প্রাপ্ত হন মায়ের দোয়া মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ। গ্রামবাসীকে ফাসঁ কাটিয়ে ২৯ জন সদস্য নিয়ে উক্ত সমিতি গঠন করেন ওই গ্রামের স্কুল শিক্ষক আব্দুল লতিফ। তবে আব্দুল লতিফ কৌশলে নিজে সমিতির সদস্য ভুক্ত না হলেও ২৯ জনের মধ্যে তার নিজের আত্মীয় স্বজন রাখেন প্রায় ২০ জন। সমিতির সভাপতি আবু মিয়া ও সাধারন সম্পাদক আব্দুল জলিল লতিফের নিকট আত্মীয়। এদিকে উক্ত বেরী বিল নামক জলমহালটি যুগ ুযগ ধরে বিলের পাড়ে অবস্থিত সুজাপুর গ্রামবাসী সম্মিলিত ভাবে গঠিত সুজাপুর মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লীজ এনে ফিশিং করে আসছিল। সম্প্রতি সুজাপুর গ্রামের বাসিন্দা সিলেটের বিশ^নাথ উপজেলায় এমপিও ভুক্ত একটি হাইস্কুলের শিক্ষক আব্দুল লতিফ তার বড় ভাই আব্দুল জলিলকে সাধারন সম্পাদক এবং নিকট আত্মীয় আবু মিয়াকে সভাপতি করে ২৯ সদস্য বিশিষ্ট মায়ের দোয়া মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ নামে সমিতি গঠন করেন। উক্ত সমিতি ১৪২৬-১৪৩১ বাংলা সন পর্যন্ত লীজ প্রাপ্ত হয়ে সমিতির অন্যান্য সদস্যদের না জানিয়ে বার আনা শিয়ার শিক্ষক আব্দুল লতিফের নামে বিক্রি করা হয়। এতে বাধা সাধেন সমিতির অপর ৬ সদস্য। এক পর্যায়ে বঞ্চিত ৬ সদস্য আইন অনুযায়ী তাদের হিস্যায় প্রাপ্ত চার আনা শিয়ার দাবী করলে শিক্ষক আব্দুল লতিফ এবং সমিতির সভাপতি-সাধারন সম্পাদক দিতে অনিহা প্রকাশ করেন। ফলে বঞ্চিত ৬ সদস্য গ্রামবাসীর কাছে তাদের প্রাপ্ত শিয়ার হস্তান্তর করে বিল ফিসিংয়ে সহায়তা কামনা করেন। মৎস্যজীবি হিসেবে খ্যাত বেরী বিলের অধিকার থেকে বঞ্চিত সুজাপুর গ্রামবাসী এতে সায় দেন। ফলে উভয় পক্ষই বিল ফিশিংয়ের জন্য খলা ঘর তৈরী করে মাছ ধরার জালসহ সরঞ্জামাধি তৈরী করেন। এদিকে সমিতির সুবিধা বঞ্চিত ৬ সদস্যের পক্ষে কনা মিয়া বাদী হয়ে হবিগঞ্জের বিজ্ঞ আদালতে ১৪৪ ধারায় মামলা দায়ের করেন। আদালত আইনশৃংখলা রক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ওসি নবীগঞ্জকে নিদের্শ প্রদান করেন। এ অবস্থায় স্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টি না হওয়া পর্যন্ত কোন পক্ষই যাতে বিল ফিশিংয়ে যেতে না পারে এ ব্যাপারে প্রশাসনসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা শান্তি প্রিয় এলাকাবাসীর।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ

উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির

Info@ujjibitobd.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯,

বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD