বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে শেষ দিনের গণস্বাক্ষর

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ কর্মসূচিতে স্বাক্ষরকারীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমাদের আয় না বাড়লেও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধিতে জনজীবন অতিষ্ঠ। এরপর বিদ্যুতের দাম বাড়লে সবকিছুর দাম আবার বাড়বে। সাধারণ নাগরিকরা মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব বাতিল করে বিদ্যুত খাতে দুর্নীতি, অপচর ও অব্যবস্থাপনার বিরুদ্ধে জোরদার অভিযান পরিচালনার আহ্বান জানান।

 

১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ শুক্রবার সকালে রাজধানীর পল্টন মোড়ে বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে সপ্তাহ ব্যাপী গণস্বাক্ষর কর্মসূচির শেষ দিনে শত শত মানুষ স্বাক্ষর করেছেন।

 

এ সময় সিপিবির কেন্দ্রীয় সদস্য রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেন, বিদ্যুতের সরকারি খাতকে পঙ্গু করে বেসরকারি খাতে উৎপাদন বাড়িয়ে দেশকে সংকটের দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। অপ্রয়োজনীয় কুইকরেন্টাল বিদ্যুতকেন্দ্র বন্ধ না করে কতিপর গোষ্ঠীকে সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। এদের কাছে বিদ্যুত ক্রয়ের নামে বছরে দেড় থেকে দুই হাজার কোটি টাকা তুলে দেওয়া হচ্ছে। তিনি জ্বালানী খাতের দুর্নীতিবাজদের ও ভুলনীতি প্রণেতাদের বিচার দাবি করেন।

 

বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, কোম্পানীগুলি লাভে থাকলেও দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে। এটা অনৈতিক। বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের প্রতীক পাট শিল্পকে ধ্বংস করে দেওয়া হচ্ছে। তাদের ন্যায্য দাবিতে অনশন করে মৃত্যুবরণ করছেন শ্রমিকরা। অথচ কোন প্রকার বিদ্যুত উৎপাদন  না করেই হাজার হাজার কোটি টাকা তুলে দেওয়া হচ্ছে কতিপয় ব্যক্তির হাতে।

 

হকার নেতা সেকন্দার হায়াত বলেন, ছোট দোকানদারদের বিদ্যুতের দাম ও শপিং মলের বিদ্যুতের দাম এক হয় কি করে।
বাংলাদেশ মোবাইল ফোন রিচার্জ ব্যবসায়ী এসোসিয়েশনের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলু বলেন, বিদ্যুত উৎপাদন কোম্পানীগুলি ৪ শতাংশ কমিশন বিটিআরসিকে দিলেও আমরা এক টাকাও পাই না।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক  পুলিশ সদস্য বলেন, আমার বাড়িতে একটি ফ্যান, একটি ফ্রিজ ও একটি লাইট জ্বালিয়ে বিল দিতে হয় ৭৫০ থেকে ৮০০ টাকা। এটা দুর্নীতি ছাড়া আর কিছু না।

 

বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. আবু বকর ছিদ্দিক বলেন, বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব

 

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সবুজ আন্দোলন পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার, বাংলাদেশ কর্মসংস্থান আন্দোলনের সভাপতি মোঃ দেলোয়ার হোসেন, সদস্য জোয়ারদার, মোস্তফা, সহ বিভিন্ন পেশাজীবী ব্যাক্তিবর্গ।

Facebook Comments

সর্বশেষ সংবাদ



» বাঙালি জাতির ইতিহাসে এক বেদনাবিধুর দিন ১৫ই আগস্ট

» বান্দরবানে রিভারভিউ যুবকল্যাণ পরিষদ কার্যালয়ের শুভ উদ্বোধন

» শরীয়তপুরে তিন মোটরসাইকেল চোর আটক করেছেন ডিবি

» পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রুহুল আমিন প্রধান

» পবিত্র ঈদুল আযহা’র শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মো. বাবর সরকার

» পবিত্র ঈদুল আযহা’র শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রফিকুল ইসলাম লাল

» পবিত্র ঈদুল আযহা’র শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আলাউদ্দিন হাওলাদার

» পবিত্র ঈদুল আযহা’র শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আলাউদ্দিন হাওলাদার

» পবিত্র ঈদুল আযহা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মনিরুল আলম সেন্টু

» পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে দেশবাসীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মীর হোসেন মীরু




প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির
editor.kuakatanews@gmail.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯ ,

বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : বুধবার, ৫ আগস্ট ২০২০, খ্রিষ্টাব্দ, ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে শেষ দিনের গণস্বাক্ষর

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ কর্মসূচিতে স্বাক্ষরকারীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমাদের আয় না বাড়লেও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধিতে জনজীবন অতিষ্ঠ। এরপর বিদ্যুতের দাম বাড়লে সবকিছুর দাম আবার বাড়বে। সাধারণ নাগরিকরা মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব বাতিল করে বিদ্যুত খাতে দুর্নীতি, অপচর ও অব্যবস্থাপনার বিরুদ্ধে জোরদার অভিযান পরিচালনার আহ্বান জানান।

 

১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ শুক্রবার সকালে রাজধানীর পল্টন মোড়ে বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে সপ্তাহ ব্যাপী গণস্বাক্ষর কর্মসূচির শেষ দিনে শত শত মানুষ স্বাক্ষর করেছেন।

 

এ সময় সিপিবির কেন্দ্রীয় সদস্য রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেন, বিদ্যুতের সরকারি খাতকে পঙ্গু করে বেসরকারি খাতে উৎপাদন বাড়িয়ে দেশকে সংকটের দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। অপ্রয়োজনীয় কুইকরেন্টাল বিদ্যুতকেন্দ্র বন্ধ না করে কতিপর গোষ্ঠীকে সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। এদের কাছে বিদ্যুত ক্রয়ের নামে বছরে দেড় থেকে দুই হাজার কোটি টাকা তুলে দেওয়া হচ্ছে। তিনি জ্বালানী খাতের দুর্নীতিবাজদের ও ভুলনীতি প্রণেতাদের বিচার দাবি করেন।

 

বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, কোম্পানীগুলি লাভে থাকলেও দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে। এটা অনৈতিক। বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের প্রতীক পাট শিল্পকে ধ্বংস করে দেওয়া হচ্ছে। তাদের ন্যায্য দাবিতে অনশন করে মৃত্যুবরণ করছেন শ্রমিকরা। অথচ কোন প্রকার বিদ্যুত উৎপাদন  না করেই হাজার হাজার কোটি টাকা তুলে দেওয়া হচ্ছে কতিপয় ব্যক্তির হাতে।

 

হকার নেতা সেকন্দার হায়াত বলেন, ছোট দোকানদারদের বিদ্যুতের দাম ও শপিং মলের বিদ্যুতের দাম এক হয় কি করে।
বাংলাদেশ মোবাইল ফোন রিচার্জ ব্যবসায়ী এসোসিয়েশনের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলু বলেন, বিদ্যুত উৎপাদন কোম্পানীগুলি ৪ শতাংশ কমিশন বিটিআরসিকে দিলেও আমরা এক টাকাও পাই না।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক  পুলিশ সদস্য বলেন, আমার বাড়িতে একটি ফ্যান, একটি ফ্রিজ ও একটি লাইট জ্বালিয়ে বিল দিতে হয় ৭৫০ থেকে ৮০০ টাকা। এটা দুর্নীতি ছাড়া আর কিছু না।

 

বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. আবু বকর ছিদ্দিক বলেন, বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব

 

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সবুজ আন্দোলন পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার, বাংলাদেশ কর্মসংস্থান আন্দোলনের সভাপতি মোঃ দেলোয়ার হোসেন, সদস্য জোয়ারদার, মোস্তফা, সহ বিভিন্ন পেশাজীবী ব্যাক্তিবর্গ।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
সহ সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা সম্পাদক : কাজী আবু তাহের মো. নাছির
editor.kuakatanews@gmail.com

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯ ,

বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৭১৪ ০৪৩ ১৯৮।
News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD