ফেসবুকে প্রেম বিয়ে, অতঃপর…!

বিধবা সাথী রানীর সঙ্গে রতন দেবনাথের ফেসবুকে পরিচয়। পরিচয়ের একপর্যায়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে দুজনের মধ্যে। শেষে বিষয়টি বিয়ে পর্যন্ত গড়ায়। বিয়ের পর ভাড়া বাসায় সুন্দরভাবে চলছিল সংসার। এর মধ্যে সাথী রানী দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। স্বামীর সংসারে নতুন অতিথির আগমনে নতুন জীবনের স্বপ্ন দেখতে শুরু করে সাথী রানী। স্বপ্নের আলো ননদের ষড়যন্ত্রের জালে নিভে গেছে। নির্যাতন সইতে না পেরে অবশেষে মৃত্যুর পথ বেছে নিয়েছে সাথী রানী।

 

গলায় কাপড় পেঁচিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। মৃত্যুর পূর্বে একটি চিরকুটে ননদ ও স্বামীকে দায়ী করেছেন গৃহবধূ।  ঘটনাটি ঘটেছে বন্দর রুপালি আবাসিক এলাকার সামছুল মিয়ার বাড়িতে। 

 

বন্দর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ আলী জানান, চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানার রাজেরগাঁও গ্রামের প্রাণ ভল্পবের বিধবা মেয়ে সাথী রানীর দুই সন্তান রেখে স্বামী মারা যায়। তার পর থেকে দুই সন্তানকে নিয়ে পিত্রালয়ে বসবাস করতো সাথী রানী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে সাথী রানীর সঙ্গে পরিচয় হয় একই এলাকার হরে কৃষ্ণ দেবনাথের ছেলে রতন দেবনাথের। ফেসবুবে ওই পরিচয়ে দুইজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। 

 

প্রেমের সম্পর্কে দুই পরিবারের অজান্তে দুইজনের বিয়ে হয়। বিয়ের ৬ মাস পর বিয়ের বিষয়টি জানাজানি হলে সাথী রানীর পরিবার মেনে নিচ্ছিল না। পরে সাথী রানী তার স্বামী রতন দেবনাথকে নিয়ে ২০১৮ সালে ২৫শে নভেম্বর নারায়ণগঞ্জের বন্দর  রুপালি আবাসিক এলাকার সামছুল  মিয়ার বাড়ির দ্বিতীয় তলায় একটি ফ্লাট ভাড়া নেয়। ভাড়াটিয়া বাসায় স্বামী-স্ত্রী বসবাস শুরু করে। এর মধ্যে গৃহবধূ দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। ৬ মাসের দাম্পত্য জীবনে সাথী রানীর সঙ্গে ননদের বিভিন্ন সময় ঝগড়া হতো। এই নিয়ে স্বামীর সঙ্গে প্রতিদিন ঝগড়াঝাটি ও বনিবনা হচ্ছিল না।

 

এর  ধারাবাহিকতায় সোমবার রাতে সাথী রানীর সঙ্গে  স্বামী রতন দেবনাথ ও ননদের কথাকাটাকাটি হয়। এর জের ধরে গত মঙ্গলবার  রাতে গৃহবধূ সাথী রানী নিজ ফ্লাটে সিলিং ফ্যানে কাপড় পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। ফাঁসি দিয়ে আত্মহত্যার আগে গৃহবধূ সাথী রানী একটি চিরকুটে ননদ ও স্বামী আত্মহত্যা করতে বাধ্য করেছে এবং মৃত্যুর জন্য তারা দায়ী লিখে জান। 

 

বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, এলাকাবাসীর সংবাদের প্রেক্ষিতে সাথী রানী নামের এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর ঝুলান্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশের পাশে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। চিরকুটের সূত্র ধরে আত্মহত্যার রহস্য উদঘাটন করার চেষ্টা চলছে। আত্মহত্যার জন্য চিরকুটে ননদ ও স্বামীকে দায়ী করেছে। এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর পিতা প্রাণ ভল্পব বাদী হয়ে থানার মামলা করেন। ঘটনাটি নিবিড় ভাবে তদন্ত করে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

 

সূত্র: মানবজমিন
Facebook Comments

সর্বশেষ সংবাদ



» প্রাথমিক শিক্ষা থেকে বঞ্চিত দেওরাছড়া বাগানের শিশুরা

» আত্রাইয়ে গাঁজাসহ তিন মাদক কারবারী আটক

» বঙ্গোপসাগরে অবৈধ শাড়িসহ ১০ জনকে আটক করেছে কোষ্টগার্ড

» সীমান্ত প্রেসক্লাব’র তত্ত্বাবধানে অগ্নিদ্বগ্ধ মারিয়াকে ঢাকায় বার্ন ইউনিটে পেরন

» মহেশপুরে মহিলা কলেজ সংলগ্ন ড্রেন থেকে বৃদ্ধের মৃতদেহ উদ্ধার

»  জনগনের নিরাপত্তা ও সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করতে ট্রাফিক পক্ষ পালন 

» ফেসবুকের পোষ্ট দেখে প্রতিবন্ধীকে হুইল চেয়ার উপহার

» গ্রাম আদালতের বার্তা মাঠ-পর্যায়ে ছড়িয়ে দেওয়ার আহবান 

» ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ধর্ষণের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

» কমিউনিটি ক্লিনিকের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত



প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ

সহ- সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

বার্তা সম্পাদক: সাদ্দাম হো‌সেন শুভ

উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

 

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
News: ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD



আজ : শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, খ্রিষ্টাব্দ, ১৩ই বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ফেসবুকে প্রেম বিয়ে, অতঃপর…!

বিধবা সাথী রানীর সঙ্গে রতন দেবনাথের ফেসবুকে পরিচয়। পরিচয়ের একপর্যায়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে দুজনের মধ্যে। শেষে বিষয়টি বিয়ে পর্যন্ত গড়ায়। বিয়ের পর ভাড়া বাসায় সুন্দরভাবে চলছিল সংসার। এর মধ্যে সাথী রানী দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। স্বামীর সংসারে নতুন অতিথির আগমনে নতুন জীবনের স্বপ্ন দেখতে শুরু করে সাথী রানী। স্বপ্নের আলো ননদের ষড়যন্ত্রের জালে নিভে গেছে। নির্যাতন সইতে না পেরে অবশেষে মৃত্যুর পথ বেছে নিয়েছে সাথী রানী।

 

গলায় কাপড় পেঁচিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। মৃত্যুর পূর্বে একটি চিরকুটে ননদ ও স্বামীকে দায়ী করেছেন গৃহবধূ।  ঘটনাটি ঘটেছে বন্দর রুপালি আবাসিক এলাকার সামছুল মিয়ার বাড়িতে। 

 

বন্দর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ আলী জানান, চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানার রাজেরগাঁও গ্রামের প্রাণ ভল্পবের বিধবা মেয়ে সাথী রানীর দুই সন্তান রেখে স্বামী মারা যায়। তার পর থেকে দুই সন্তানকে নিয়ে পিত্রালয়ে বসবাস করতো সাথী রানী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে সাথী রানীর সঙ্গে পরিচয় হয় একই এলাকার হরে কৃষ্ণ দেবনাথের ছেলে রতন দেবনাথের। ফেসবুবে ওই পরিচয়ে দুইজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। 

 

প্রেমের সম্পর্কে দুই পরিবারের অজান্তে দুইজনের বিয়ে হয়। বিয়ের ৬ মাস পর বিয়ের বিষয়টি জানাজানি হলে সাথী রানীর পরিবার মেনে নিচ্ছিল না। পরে সাথী রানী তার স্বামী রতন দেবনাথকে নিয়ে ২০১৮ সালে ২৫শে নভেম্বর নারায়ণগঞ্জের বন্দর  রুপালি আবাসিক এলাকার সামছুল  মিয়ার বাড়ির দ্বিতীয় তলায় একটি ফ্লাট ভাড়া নেয়। ভাড়াটিয়া বাসায় স্বামী-স্ত্রী বসবাস শুরু করে। এর মধ্যে গৃহবধূ দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। ৬ মাসের দাম্পত্য জীবনে সাথী রানীর সঙ্গে ননদের বিভিন্ন সময় ঝগড়া হতো। এই নিয়ে স্বামীর সঙ্গে প্রতিদিন ঝগড়াঝাটি ও বনিবনা হচ্ছিল না।

 

এর  ধারাবাহিকতায় সোমবার রাতে সাথী রানীর সঙ্গে  স্বামী রতন দেবনাথ ও ননদের কথাকাটাকাটি হয়। এর জের ধরে গত মঙ্গলবার  রাতে গৃহবধূ সাথী রানী নিজ ফ্লাটে সিলিং ফ্যানে কাপড় পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। ফাঁসি দিয়ে আত্মহত্যার আগে গৃহবধূ সাথী রানী একটি চিরকুটে ননদ ও স্বামী আত্মহত্যা করতে বাধ্য করেছে এবং মৃত্যুর জন্য তারা দায়ী লিখে জান। 

 

বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, এলাকাবাসীর সংবাদের প্রেক্ষিতে সাথী রানী নামের এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর ঝুলান্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশের পাশে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। চিরকুটের সূত্র ধরে আত্মহত্যার রহস্য উদঘাটন করার চেষ্টা চলছে। আত্মহত্যার জন্য চিরকুটে ননদ ও স্বামীকে দায়ী করেছে। এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর পিতা প্রাণ ভল্পব বাদী হয়ে থানার মামলা করেন। ঘটনাটি নিবিড় ভাবে তদন্ত করে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

 

সূত্র: মানবজমিন
Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ





সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



প্রকাশক : মো:  আবদুল মালেক
সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ

সহ- সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

বার্তা সম্পাদক: সাদ্দাম হো‌সেন শুভ

উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন

 

যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
News: ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD