টুখেলের বায়ার্ন-অভিষেক রাঙিয়ে দিলেন মুলার

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

মুখোমুখি বায়ার্ন মিউনিখ-বরুসিয়া ডর্টমুন্ড, ম্যাচে ঝাঁঝ বাড়াতে যথেষ্ট ছিল এটুকুই। কিন্তু অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনার আজকের জার্মান ক্লাসিকোয় বাড়তি জ্বালানি সরবরাহ হিসেবে ছিল লিগ শিরোপার অঙ্ক। আর এমন একটি ম্যাচে সাবেক ক্লাবের বিপক্ষে বায়ার্ন ডাগআউটে অভিষেক টমাস টুখেলের।

 

সব উপলক্ষ্যই ষোলো আনা নিজেদের করে নিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। ঘরের মাটিতে ‘ডার ক্লাসিকার’-এ ডর্টমুন্ডকে ৪-২ ব্যবধানে হারিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। টুখেলের অভিষেক বড় জয়ে তো হলোই, সেই সঙ্গে বুন্দেসলিগার শিরোপা দৌড়েও ডর্টমুন্ডকে টপকে সামনে এগিয়ে গেল বায়ার্ন।

 

২৬ ম্যাচ শেষে টুখেলের দলের পয়েন্ট ৫৫, ডর্টমুন্ডের ৫৩। ৫১ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে ইউনিয়ন বার্লিন।

 

মৌসুমের দ্বিতীয় জার্মান ক্লাসিকো হিসেবে দুই সপ্তাহ আগেও এই ম্যাচের মূল আলোচনা ছিল শিরোপার হিসাব-নিকাশ। আন্তর্জাতিক ফুটবলের জন্য বিরতির আগে বায়ার্নের চেয়ে এক পয়েন্ট এগিয়ে গিয়েছিল ডর্টমুন্ড। বিরতির মধ্যে হুলিয়ান নাগলসমানের আকস্মিক ছাঁটাইয়ের কারণে বায়ার্নের ভেতরে-বাইরে অস্বস্তি আরও বাড়ে।

 

নতুন কোচ হয়ে আসেন টুখেল, ২০১৫ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত যিনি ডর্টমুন্ডের ডাগআউটে ছিলেন। কাকতালীয়ভাবে বায়ার্ন কোচ হিসেবে টুখেল প্রথম প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়ে যান সাবেক ক্লাবকে।

 

বুন্দেসলিগায় ডর্টমুন্ডের সাম্প্রতিক যে ছন্দ, সেটি অবশ্য টুখেলের দলের বিপক্ষে দেখাই যায়নি। ম্যাচের ১৩ মিনিটেই গোলরক্ষক গ্রেগর কোবেলের হাস্যকর এক ভুলে আত্মঘাতি গোল খেয়ে বসে ডর্টমুন্ড।

 

প্রথম গোল ভাগ্যের সহায়তায় পেলেও দ্রুতই বায়ার্ন নিজেদের শক্তির জানান দিতে শুরু করে। ১৮ মিনিটে ম্যাথিয়াস ডি লিটের পাস ধরে বক্সের ভেতর থেকে নেওয়া শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করনে টমাস মুলার।

 

৩৩ বছর বয়সী এই জার্মান ফরোয়ার্ড ৫ মিনিট পর গোল এনে দেন আরও একটি। লেরয় সানের শট কোবেল আটকে দিলেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ছুটে গিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন মুলার। ম্যাচের তিন ভাগ সময়ের এক ভাগ যাওয়ার আগেই তিন গোল দিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় বায়ার্ন।

 

বিরতির পর ডর্টমুন্ড ঘুরে দাঁড়ানোর আগে চতুর্থ গোলটিও পেয়ে যায় বায়ার্ন। সানের পাস থেকে ঠাণ্ডা মাথায় টোকা দিয়ে বল জালে পাঠান কিংসলে কোমান।

 

হার প্রায় নিশ্চিত হয়ে যাওয়ার পর শেষ দিকে দুটি গোল শোধ দেয় ডর্টমুন্ড। ৭১ মিনিটে জুদে বেলিংহাম ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় সফরকারীরা। সফল কিকে ডর্টমুন্ডকে প্রথম গোল এনে দেন এমরে কান। ৯০ মিনিটে আরেকটি গোল শোধ দেন ডোনেল মালেন।

ফেসবুক মন্তব্য করুন

সর্বশেষ সংবাদ



» আমতলীতে বিয়ের হাইএক্স মাইক্রোসসহ সেতু ধসে খালে ৯জনের লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ ৩

» আমতলীতে ছাগলে ধানগাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত ৫!

» আমতলীতে খাদ্যদ্রব্যে বিষাক্ত কাপড়ের রং ব্যবহারে হোটেল মালিককে জরিমানা!

» ঈদকে সামনে রেখে বেনাপোলে ব্যাংক কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীদের সাথে পুলিশের আলোচনা সভা

» আমতলীতে ঘরের দলিল ও চাবি পেল ১০০ ভূমিহীন পরিবার

» শিক্ষকদের অনুপুস্থিতি আর অবহেলায় চলছে পাগলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

» ছিনতাই মামলার আসামী অমল এখন মাসদাইর পৌর শ্মশানের ডোম!

» ফতুল্লায় গ্যাস সংকট নিরসনে মানববন্ধন

» আমতলীতে ভূমি সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন!

» শার্শায় স্থানীয় সম্পদ আহরণ ও ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষণ

সম্পাদক : সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
নির্বাহী সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

প্রকাশক : মো: আবদুল মালেক
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯।
editor.kuakatanews@gmail.com

প্রধান কার্যালয় : সৌদি ভিলা- চ ৩৫/৫ উত্তর বাড্ডা,
গুলশান, ঢাকা- ১২১২।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : সেহাচর, তক্কারমাঠ রোড, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।
ফোন : +৮৮ ০১৬৭৪-৬৩২৫০৯, ০১৯১৮-১৭৮৬৫৯

Email : ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, খ্রিষ্টাব্দ, ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টুখেলের বায়ার্ন-অভিষেক রাঙিয়ে দিলেন মুলার

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

মুখোমুখি বায়ার্ন মিউনিখ-বরুসিয়া ডর্টমুন্ড, ম্যাচে ঝাঁঝ বাড়াতে যথেষ্ট ছিল এটুকুই। কিন্তু অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনার আজকের জার্মান ক্লাসিকোয় বাড়তি জ্বালানি সরবরাহ হিসেবে ছিল লিগ শিরোপার অঙ্ক। আর এমন একটি ম্যাচে সাবেক ক্লাবের বিপক্ষে বায়ার্ন ডাগআউটে অভিষেক টমাস টুখেলের।

 

সব উপলক্ষ্যই ষোলো আনা নিজেদের করে নিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। ঘরের মাটিতে ‘ডার ক্লাসিকার’-এ ডর্টমুন্ডকে ৪-২ ব্যবধানে হারিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। টুখেলের অভিষেক বড় জয়ে তো হলোই, সেই সঙ্গে বুন্দেসলিগার শিরোপা দৌড়েও ডর্টমুন্ডকে টপকে সামনে এগিয়ে গেল বায়ার্ন।

 

২৬ ম্যাচ শেষে টুখেলের দলের পয়েন্ট ৫৫, ডর্টমুন্ডের ৫৩। ৫১ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে ইউনিয়ন বার্লিন।

 

মৌসুমের দ্বিতীয় জার্মান ক্লাসিকো হিসেবে দুই সপ্তাহ আগেও এই ম্যাচের মূল আলোচনা ছিল শিরোপার হিসাব-নিকাশ। আন্তর্জাতিক ফুটবলের জন্য বিরতির আগে বায়ার্নের চেয়ে এক পয়েন্ট এগিয়ে গিয়েছিল ডর্টমুন্ড। বিরতির মধ্যে হুলিয়ান নাগলসমানের আকস্মিক ছাঁটাইয়ের কারণে বায়ার্নের ভেতরে-বাইরে অস্বস্তি আরও বাড়ে।

 

নতুন কোচ হয়ে আসেন টুখেল, ২০১৫ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত যিনি ডর্টমুন্ডের ডাগআউটে ছিলেন। কাকতালীয়ভাবে বায়ার্ন কোচ হিসেবে টুখেল প্রথম প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়ে যান সাবেক ক্লাবকে।

 

বুন্দেসলিগায় ডর্টমুন্ডের সাম্প্রতিক যে ছন্দ, সেটি অবশ্য টুখেলের দলের বিপক্ষে দেখাই যায়নি। ম্যাচের ১৩ মিনিটেই গোলরক্ষক গ্রেগর কোবেলের হাস্যকর এক ভুলে আত্মঘাতি গোল খেয়ে বসে ডর্টমুন্ড।

 

প্রথম গোল ভাগ্যের সহায়তায় পেলেও দ্রুতই বায়ার্ন নিজেদের শক্তির জানান দিতে শুরু করে। ১৮ মিনিটে ম্যাথিয়াস ডি লিটের পাস ধরে বক্সের ভেতর থেকে নেওয়া শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করনে টমাস মুলার।

 

৩৩ বছর বয়সী এই জার্মান ফরোয়ার্ড ৫ মিনিট পর গোল এনে দেন আরও একটি। লেরয় সানের শট কোবেল আটকে দিলেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ছুটে গিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন মুলার। ম্যাচের তিন ভাগ সময়ের এক ভাগ যাওয়ার আগেই তিন গোল দিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় বায়ার্ন।

 

বিরতির পর ডর্টমুন্ড ঘুরে দাঁড়ানোর আগে চতুর্থ গোলটিও পেয়ে যায় বায়ার্ন। সানের পাস থেকে ঠাণ্ডা মাথায় টোকা দিয়ে বল জালে পাঠান কিংসলে কোমান।

 

হার প্রায় নিশ্চিত হয়ে যাওয়ার পর শেষ দিকে দুটি গোল শোধ দেয় ডর্টমুন্ড। ৭১ মিনিটে জুদে বেলিংহাম ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় সফরকারীরা। সফল কিকে ডর্টমুন্ডকে প্রথম গোল এনে দেন এমরে কান। ৯০ মিনিটে আরেকটি গোল শোধ দেন ডোনেল মালেন।

ফেসবুক মন্তব্য করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

সম্পাদক : সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
নির্বাহী সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

প্রকাশক : মো: আবদুল মালেক
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯।
editor.kuakatanews@gmail.com

প্রধান কার্যালয় : সৌদি ভিলা- চ ৩৫/৫ উত্তর বাড্ডা,
গুলশান, ঢাকা- ১২১২।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : সেহাচর, তক্কারমাঠ রোড, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।
ফোন : +৮৮ ০১৬৭৪-৬৩২৫০৯, ০১৯১৮-১৭৮৬৫৯

Email : ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD