দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে অপহরণ মামলার আসামি, থানা থেকে জামাই আদরে মুক্তি

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে অপহরণ মামলার এজারভুক্ত আসামি দুপুরে গ্রেফতার বিকেলেই থানা থেকে জামাই আদরে মুক্ত।

 

শনিবার (২৩ মার্চ) বিকেলে ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার কাজীরগাঁও এলাকার ৯ম শ্রেণীতে পড়ুয়া স্কুল ছাত্রী অপহরণের ঘটনায় মামলার এজারভুক্ত আসামি মোঃ রাসেল (২৪) কে গ্রেফতার করে কেরানীগঞ্জ থানার সহকারি উপ-পরিদর্শক মহিদুল ইসলাম।

 

গ্রেফতারের পর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক দেলোয়ার হোসেনকে জানালে পরে ঘটনাস্থলে দেলোয়ার হোসেন এসে অপহরণ মামলার আসামি রাসেল (২৪ ) কে থানায় নিয়ে যাওয়া হয় ।পরে অপহৃতকে উদ্ধারের চেষ্টা না করে পুলিশ থানা হাজতে দুই ঘন্টা আটক রেখে মোটা অংকের অর্থের বিনিময় ছেড়ে দেয় আসামি রাসেলকে ।

 

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তি, ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার, কোন্ডা ইউনিনের কাজিরগাও গ্রামের মোঃ জাকির মিয়ার ছেলে মোঃ রাসেল (২৪)।

 

মামলা সূত্রে জানা যায় ,দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীণ দক্ষিণ পানগাঁও ফয়সাল প্রি-ক্যাডেট এন্ড হাই স্কুলের ৯ম শ্রেনীতে পড়ুয়া স্কুল ছাত্রী (১৫) ব্যাচে কোচিং করার জন্য বাসা হইতে বাহির হইলে
কাজিরগাঁও বাজার সামনে থেকে পাভেল (২২) রাসেল (২৪) সহ অজ্ঞাতনামা দুই তিন জন অপহরণ করে নিয়ে যায়।

 

এঘটনায় ভুক্তভোগীর মা খুকি বেগম বাদি হয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

 

মামলার আসামিরা এলাকায় ঘোরাঘুরি করলেও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই দেলোয়ার হোসেন আসামিদের গ্রেপ্তারের কোন চেষ্টা করেনি।

 

শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে বাদী খুকি বেগমের ভাই আসামিদের খোঁজ পেলে জাজিরা পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক দেলোয়ার হোসেন কে ফোন করলে তিনি ফোন কলটি রিসিভ করেননি, পরে বাদীর ভাই সোহেল আহমেদ জরুরী সেবা ৯৯৯ ফোন করে বিষয়টি জানালে তারা দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসারের নাম্বারটি দেন কথা বলার জন্য, পরে ডিউটি অফিসার কে ফোন দিলে তিনি সহকারি উপ-পরিদর্শক মহিদুল ইসলাম এর ফোন নাম্বারটি দেন এবং তার সাথে কথা বলতে বলেন। পরে মহিদুল ইসলামকে ফোন দিলে তিনি তাৎক্ষণিক চলে আসেন এবং কোন্ডা ইউনিনের কাজেরগাঁও এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহরণ মামলার এজারভুক্ত ২ নাম্বার আসামি রাসেলকে গ্রেফতার করা হয়।

 

এ বিষয়ে কেরানীগঞ্জ থানা উপ-পরিদর্শক দেলোয়ার হোসেন বলেন, ভাই আপনি দীর্ঘদিন যাবত সাংবাদিকতা করেন সবকিছুই জানেন এমন প্রশ্ন করলে কি হবে, ছেড়ে দেওয়ার মালিক তো আমি না আমি তো শুধু গ্রেফতার করতে পারি। ভাই পুলিশ কোন আসামি ছাড়তে পারে না আবার সব আসামী যাচাই-বাছাই করে ছাড়তে পারে।

 

এ বিষয়ে কেরানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মামুন অর রশিদ বলেন, মূলত বিষয়টি প্রেম গঠিত এক্ষেত্রে মেয়ের ফ্যামিলি অনেকেরই আসামি করতে পারে, কিন্তু মূলত আসামি হয় একজনই। তাই তাকে মায়ের জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

 

ঢাকা জেলা কেরাণীগঞ্জ সার্কেল শাহাবুদ্দিন কবির বলেন, গ্রেফতারের বিষয়টি আমি শুনেছি, দেলোয়ার হোসেনকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যেখান থেকেই পারুক ছেলে মেয়েকে উদ্ধারের কথা বলা হয়েছে।

ফেসবুক মন্তব্য করুন

সর্বশেষ সংবাদ



» শার্শায় ফসলি জমির মাটি বিক্রির সিন্ডিকেট বেপরোয়া।। জড়িত খোদ ইউপি সদস্যরা

» ঝিকরগাছায় পুলিশের অভিযানে ১২কেজি গাঁজা ও সাজাপ্রাপ্ত আসামী আটক

» পাগলায় সন্ত্রাসীদের চাঁদাবাজি ও হুমকির কারনে কারখানা বন্ধর ঘোষনা

» আমতলী উপজেলা নির্বাচনে দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার!

» ফতুল্লায় রাজমিস্ত্রি রাজ্জাক হত্যা মামলার প্রধান আসামী মাসুম গ্রেফতার

» শার্শায় নির্বাচনী প্রচারণা

» ফতুল্লায় শিশু অপহরণের ৩৬ ঘণ্টা পর জামালপুরে উদ্ধার

» নারীকে উত্যাক্তের প্রতিবাদ করায় গ্রাম আদালতের পেশকারকে কুপিয়ে জখম! 

» আমতলীর ১০ হাজার কৃষক পেল বীনামূল্যে সার ও বীজ!

» কদমতলী থানা প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে সাংবাদিক নির্যাতনের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

সম্পাদক : সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
নির্বাহী সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

প্রকাশক : মো: আবদুল মালেক
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯।
editor.kuakatanews@gmail.com

প্রধান কার্যালয় : সৌদি ভিলা- চ ৩৫/৫ উত্তর বাড্ডা,
গুলশান, ঢাকা- ১২১২।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : সেহাচর, তক্কারমাঠ রোড, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।
ফোন : +৮৮ ০১৬৭৪-৬৩২৫০৯, ০১৯১৮-১৭৮৬৫৯

Email : ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, খ্রিষ্টাব্দ, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে অপহরণ মামলার আসামি, থানা থেকে জামাই আদরে মুক্তি

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে অপহরণ মামলার এজারভুক্ত আসামি দুপুরে গ্রেফতার বিকেলেই থানা থেকে জামাই আদরে মুক্ত।

 

শনিবার (২৩ মার্চ) বিকেলে ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার কাজীরগাঁও এলাকার ৯ম শ্রেণীতে পড়ুয়া স্কুল ছাত্রী অপহরণের ঘটনায় মামলার এজারভুক্ত আসামি মোঃ রাসেল (২৪) কে গ্রেফতার করে কেরানীগঞ্জ থানার সহকারি উপ-পরিদর্শক মহিদুল ইসলাম।

 

গ্রেফতারের পর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক দেলোয়ার হোসেনকে জানালে পরে ঘটনাস্থলে দেলোয়ার হোসেন এসে অপহরণ মামলার আসামি রাসেল (২৪ ) কে থানায় নিয়ে যাওয়া হয় ।পরে অপহৃতকে উদ্ধারের চেষ্টা না করে পুলিশ থানা হাজতে দুই ঘন্টা আটক রেখে মোটা অংকের অর্থের বিনিময় ছেড়ে দেয় আসামি রাসেলকে ।

 

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তি, ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার, কোন্ডা ইউনিনের কাজিরগাও গ্রামের মোঃ জাকির মিয়ার ছেলে মোঃ রাসেল (২৪)।

 

মামলা সূত্রে জানা যায় ,দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীণ দক্ষিণ পানগাঁও ফয়সাল প্রি-ক্যাডেট এন্ড হাই স্কুলের ৯ম শ্রেনীতে পড়ুয়া স্কুল ছাত্রী (১৫) ব্যাচে কোচিং করার জন্য বাসা হইতে বাহির হইলে
কাজিরগাঁও বাজার সামনে থেকে পাভেল (২২) রাসেল (২৪) সহ অজ্ঞাতনামা দুই তিন জন অপহরণ করে নিয়ে যায়।

 

এঘটনায় ভুক্তভোগীর মা খুকি বেগম বাদি হয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

 

মামলার আসামিরা এলাকায় ঘোরাঘুরি করলেও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই দেলোয়ার হোসেন আসামিদের গ্রেপ্তারের কোন চেষ্টা করেনি।

 

শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে বাদী খুকি বেগমের ভাই আসামিদের খোঁজ পেলে জাজিরা পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক দেলোয়ার হোসেন কে ফোন করলে তিনি ফোন কলটি রিসিভ করেননি, পরে বাদীর ভাই সোহেল আহমেদ জরুরী সেবা ৯৯৯ ফোন করে বিষয়টি জানালে তারা দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসারের নাম্বারটি দেন কথা বলার জন্য, পরে ডিউটি অফিসার কে ফোন দিলে তিনি সহকারি উপ-পরিদর্শক মহিদুল ইসলাম এর ফোন নাম্বারটি দেন এবং তার সাথে কথা বলতে বলেন। পরে মহিদুল ইসলামকে ফোন দিলে তিনি তাৎক্ষণিক চলে আসেন এবং কোন্ডা ইউনিনের কাজেরগাঁও এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহরণ মামলার এজারভুক্ত ২ নাম্বার আসামি রাসেলকে গ্রেফতার করা হয়।

 

এ বিষয়ে কেরানীগঞ্জ থানা উপ-পরিদর্শক দেলোয়ার হোসেন বলেন, ভাই আপনি দীর্ঘদিন যাবত সাংবাদিকতা করেন সবকিছুই জানেন এমন প্রশ্ন করলে কি হবে, ছেড়ে দেওয়ার মালিক তো আমি না আমি তো শুধু গ্রেফতার করতে পারি। ভাই পুলিশ কোন আসামি ছাড়তে পারে না আবার সব আসামী যাচাই-বাছাই করে ছাড়তে পারে।

 

এ বিষয়ে কেরানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মামুন অর রশিদ বলেন, মূলত বিষয়টি প্রেম গঠিত এক্ষেত্রে মেয়ের ফ্যামিলি অনেকেরই আসামি করতে পারে, কিন্তু মূলত আসামি হয় একজনই। তাই তাকে মায়ের জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

 

ঢাকা জেলা কেরাণীগঞ্জ সার্কেল শাহাবুদ্দিন কবির বলেন, গ্রেফতারের বিষয়টি আমি শুনেছি, দেলোয়ার হোসেনকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যেখান থেকেই পারুক ছেলে মেয়েকে উদ্ধারের কথা বলা হয়েছে।

ফেসবুক মন্তব্য করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

সম্পাদক : সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
নির্বাহী সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

প্রকাশক : মো: আবদুল মালেক
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯।
editor.kuakatanews@gmail.com

প্রধান কার্যালয় : সৌদি ভিলা- চ ৩৫/৫ উত্তর বাড্ডা,
গুলশান, ঢাকা- ১২১২।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : সেহাচর, তক্কারমাঠ রোড, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।
ফোন : +৮৮ ০১৬৭৪-৬৩২৫০৯, ০১৯১৮-১৭৮৬৫৯

Email : ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD