মহানগর বিএনপি ও ইউনিট কমিটি গুলো এখন বিএনএফ- আ.লীগ-জাপার দখলে

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

স্বচ্ছাতাকে পাশ কাটিয়ে এবং পরিতন্ত্রর রাজনীতি থেকে মুক্ত করার ঘোষনা দিয়ে এবার বিএনএফ, বিদিশা ফাউন্ডেশন, আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টি সমর্থিত নেতাদের নিয়ে মহানগর বিএনপির বিভিন্ন ইউনিট কমিটি সাজিয়েছেন এ্যাড. সাখাওয়াত ও এ্যাড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু।

 

যদিও তারা কমিটি পাওয়ার পর থেকে আওয়ামীলীগ ঘেষা ও লাঙ্গল মার্কা নেতাদের থেকে বিএনপিকে মুক্ত করার ঘোষনা দিয়েছেন বহুবার।

 

অথচ খোদ মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব এ্যাড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু যিনি মহানগর বিএনএফ এর প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহন করেছিলেন। আর সেই কমিটিতে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির অনেক রথি মহা রথিদের পদ পদবি।

 

এছাড়াও মহানগর বিএনপির সকল ইউনিট কমিটি গুলো আওয়ামীলীগ ঘেষা, লাঙ্গল মার্কা নেতাদের দিয়ে কমিটি সাজানোর ফলে দলের স্বার্থ হাসিল না হলেও তাদের ব্যক্তিগত স্বার্থ হাসিল হবে বলে দাবি করেছেন দলটির তৃণমূল।

 

এদিকে মহানগর বিএনপির আহবায়ক এ্যাড. সাখাওয়াত হোসেন খান রাজনৈতিক পাড়ায় দলের সাথে বৈঈমানী করার কলঙ্কের অধ্যায়ের সূচনা করেছিলেন অর্থের বিনিময়ে নাসিক নির্বাচনে। আর এই বিষয়টি রাজনৈতিক পাড়ায় বেশ সমালোচনার জন্ম দিয়ে ছিলো। আবারো সেই ঘটনার অভিযোগ উঠছে বিএনপির তৃণমূল থেকে।

 

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির তৃণমূল নেতারা দাবি করে বলেন, বিএনপি একটি বৃহৎ দল এখানে সমর্থকদের অভাব নেই। তবে কেন সিনিয়র নেতাদের বলি দিয়ে বিদিশা ফাউন্ডেশন, আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টি ঘেষা নেতাদের দিয়ে বিভিন্ন ইউনিট কমিটি গুছাতে হবে। কোন এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য তরিগড়ি করে কমিটি সাজাতে ব্যস্ত হয়ে পরেছেন এই দুই নেতা।

 

তারা আরও অভিযোগ করে বলেন, মহানগর বিএনপির আওতাধীন দুটি থানা কমিটিতেই বিদিশা ফাউন্ডেশন সমর্থক ও ঢাকঢোল পিটিয়ে আওয়ামীলীগে যোগদান করা নেতাদের দিয়ে সম্মেলনের নামে তরিগরি করে কমিটি ঘোষনা করলেন তারা।

 

ইতিমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদের স্ত্রী বিদিশা এরশাদের সঙ্গে ছবি ভাইরাল হয়েছিলো সদর থানার সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. আনোয়ার প্রধানের সঙ্গে। যদিও এ্যাড. আনোয়ার প্রধান সেই সময় জেলা মৎসজীবি দলের আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন, যা এখনও চলমান।

 

অপরদিকে, বন্দর থানা বিএনপির নবগঠিত কমিটির সভাপতি শাহেন শাহ বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে মিছিল নিয়ে বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি এম এ রশিদ ও সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিনকে প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিনে ফুল দিয়ে যোগদান করেন। আর সেই সময় শাহেন শাহ কাউন্সিলরও ছিলো না। যা স্থানীয় মিডিয়াতে বেশ আলোচনা ও সমালোচনার জন্ম দিয়ে ছিলো।

 

ঠিক একই কায়দায় বন্দর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটিতে যুগ্ম-আহবায়ক হিসেবে যাকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছিলো যুবদলের একাধিক নেতাদের। এর মধ্যে একজন বরিশাইলা লিটন যিনি বর্তমান ক্ষমতাশীনদের সাথে আতাঁত করে বিভিন্ন টেন্ডারবাজী করে বিপুল পরিমান সম্পদের পাহার গাড়ে তুলেছে। অভিযোগ রয়েছে অর্থের বিনিময় লোক দেখানো সম্মেলন করে তাকে বন্দর উপজেলা বিএনপির সভাপতি পদে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।

 

এছাড়াও বিভিন্ ওয়ার্ড কমিটি গুলো একই ভাবে বর্হিরাগতদের দিয়ে কমিটি সাজিয়েছেন বলে নানা অভিযোগ তুলছেন বিএনপির তৃণমূল।

ফেসবুক মন্তব্য করুন

সর্বশেষ সংবাদ



» সংবাদ প্রকাশের পর প্রাপ্তি সিটিতে তিতাসের অভিযান, অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

» আজ পবিত্র শবে বরাত

» ফতুল্লায় শেখ রাসেল ডিগবার ফুটবল টুর্নামেন্ট এর ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত

» কুতুবপুরে পিটিয়ে যুবককে হত্যা, ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা

» নৃত্য আর গানে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানালো পাগলা উচ্চ বিদ্যালয়!

» ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে ফতুল্লা প্রেসক্লাব

» রিয়াদ মো.চৌধূরীর নেতৃত্বে ভাষা শহীদদের প্রতি ফতুল্লা থানা বিএনপির শ্রদ্ধাঞ্জলি 

» ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন আলাউদ্দিন হাওলাদার

» ফতুল্লায় সাড়ে ১০ লাখ টাকা নিয়ে উধাও ছালেহা দম্পতি

» দৈনিক ঘোষণার ৩০ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

সম্পাদক : সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
নির্বাহী সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

প্রকাশক : মো: আবদুল মালেক
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯।
editor.kuakatanews@gmail.com

প্রধান কার্যালয় : সৌদি ভিলা- চ ৩৫/৫ উত্তর বাড্ডা,
গুলশান, ঢাকা- ১২১২।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : সেহাচর, তক্কারমাঠ রোড, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।
ফোন : +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ০১৬৭৪৬৩২৫০৯

Email : ujjibitobd@gmail.com

Desing & Developed BY RL IT BD
আজ : সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, খ্রিষ্টাব্দ, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মহানগর বিএনপি ও ইউনিট কমিটি গুলো এখন বিএনএফ- আ.লীগ-জাপার দখলে

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

স্বচ্ছাতাকে পাশ কাটিয়ে এবং পরিতন্ত্রর রাজনীতি থেকে মুক্ত করার ঘোষনা দিয়ে এবার বিএনএফ, বিদিশা ফাউন্ডেশন, আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টি সমর্থিত নেতাদের নিয়ে মহানগর বিএনপির বিভিন্ন ইউনিট কমিটি সাজিয়েছেন এ্যাড. সাখাওয়াত ও এ্যাড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু।

 

যদিও তারা কমিটি পাওয়ার পর থেকে আওয়ামীলীগ ঘেষা ও লাঙ্গল মার্কা নেতাদের থেকে বিএনপিকে মুক্ত করার ঘোষনা দিয়েছেন বহুবার।

 

অথচ খোদ মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব এ্যাড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু যিনি মহানগর বিএনএফ এর প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহন করেছিলেন। আর সেই কমিটিতে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির অনেক রথি মহা রথিদের পদ পদবি।

 

এছাড়াও মহানগর বিএনপির সকল ইউনিট কমিটি গুলো আওয়ামীলীগ ঘেষা, লাঙ্গল মার্কা নেতাদের দিয়ে কমিটি সাজানোর ফলে দলের স্বার্থ হাসিল না হলেও তাদের ব্যক্তিগত স্বার্থ হাসিল হবে বলে দাবি করেছেন দলটির তৃণমূল।

 

এদিকে মহানগর বিএনপির আহবায়ক এ্যাড. সাখাওয়াত হোসেন খান রাজনৈতিক পাড়ায় দলের সাথে বৈঈমানী করার কলঙ্কের অধ্যায়ের সূচনা করেছিলেন অর্থের বিনিময়ে নাসিক নির্বাচনে। আর এই বিষয়টি রাজনৈতিক পাড়ায় বেশ সমালোচনার জন্ম দিয়ে ছিলো। আবারো সেই ঘটনার অভিযোগ উঠছে বিএনপির তৃণমূল থেকে।

 

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির তৃণমূল নেতারা দাবি করে বলেন, বিএনপি একটি বৃহৎ দল এখানে সমর্থকদের অভাব নেই। তবে কেন সিনিয়র নেতাদের বলি দিয়ে বিদিশা ফাউন্ডেশন, আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টি ঘেষা নেতাদের দিয়ে বিভিন্ন ইউনিট কমিটি গুছাতে হবে। কোন এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য তরিগড়ি করে কমিটি সাজাতে ব্যস্ত হয়ে পরেছেন এই দুই নেতা।

 

তারা আরও অভিযোগ করে বলেন, মহানগর বিএনপির আওতাধীন দুটি থানা কমিটিতেই বিদিশা ফাউন্ডেশন সমর্থক ও ঢাকঢোল পিটিয়ে আওয়ামীলীগে যোগদান করা নেতাদের দিয়ে সম্মেলনের নামে তরিগরি করে কমিটি ঘোষনা করলেন তারা।

 

ইতিমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদের স্ত্রী বিদিশা এরশাদের সঙ্গে ছবি ভাইরাল হয়েছিলো সদর থানার সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. আনোয়ার প্রধানের সঙ্গে। যদিও এ্যাড. আনোয়ার প্রধান সেই সময় জেলা মৎসজীবি দলের আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন, যা এখনও চলমান।

 

অপরদিকে, বন্দর থানা বিএনপির নবগঠিত কমিটির সভাপতি শাহেন শাহ বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে মিছিল নিয়ে বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি এম এ রশিদ ও সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিনকে প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিনে ফুল দিয়ে যোগদান করেন। আর সেই সময় শাহেন শাহ কাউন্সিলরও ছিলো না। যা স্থানীয় মিডিয়াতে বেশ আলোচনা ও সমালোচনার জন্ম দিয়ে ছিলো।

 

ঠিক একই কায়দায় বন্দর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটিতে যুগ্ম-আহবায়ক হিসেবে যাকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছিলো যুবদলের একাধিক নেতাদের। এর মধ্যে একজন বরিশাইলা লিটন যিনি বর্তমান ক্ষমতাশীনদের সাথে আতাঁত করে বিভিন্ন টেন্ডারবাজী করে বিপুল পরিমান সম্পদের পাহার গাড়ে তুলেছে। অভিযোগ রয়েছে অর্থের বিনিময় লোক দেখানো সম্মেলন করে তাকে বন্দর উপজেলা বিএনপির সভাপতি পদে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।

 

এছাড়াও বিভিন্ ওয়ার্ড কমিটি গুলো একই ভাবে বর্হিরাগতদের দিয়ে কমিটি সাজিয়েছেন বলে নানা অভিযোগ তুলছেন বিএনপির তৃণমূল।

ফেসবুক মন্তব্য করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here




সর্বশেষ সংবাদ



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us

সম্পাদক : সো‌হেল আহ‌ম্মেদ
নির্বাহী সম্পাদক : কামাল হোসেন খান

প্রকাশক : মো: আবদুল মালেক
উপদেষ্টা সম্পাদক : রফিকুল্লাহ রিপন
বার্তা : + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯।
editor.kuakatanews@gmail.com

প্রধান কার্যালয় : সৌদি ভিলা- চ ৩৫/৫ উত্তর বাড্ডা,
গুলশান, ঢাকা- ১২১২।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : সেহাচর, তক্কারমাঠ রোড, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।
ফোন : +৮৮ ০১৯৭৪ ৬৩২ ৫০৯, ০১৬৭৪৬৩২৫০৯

Email : ujjibitobd@gmail.com

© Copyright BY উজ্জীবিত বাংলাদেশ

Design & Developed BY Popular IT BD